মেইন ম্যেনু

রিংটোন : জাতীয় সংগীতের ব্যবহার নিষিদ্ধের রায় বহাল

বেসরকারি মোবাইল ফোন অপারেটর রবির রিংটোন হিসেবে জাতীয় সংগীতের ব্যবহার নিষিদ্ধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেওয়া রায় বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে রবি আজিয়াটা লিমিটেডকে ‘দাতব্য অনুদান’ হিসেবে ৫০ লাখ টাকা কমিয়ে ৩০ লাখ টাকা মহাখালী ক্যানসার রিসার্চ হাসপাতালকে দিতে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে করা রবির লিভ টু আপিল নিষ্পত্তি করে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে রিটকারীর পক্ষে ব্যারিস্টার মাসুদ আহমেদ সায়ীদ ও রবির পক্ষে ব্যারিস্টার সারা হোসেন শুনানি করেন।

এর আগে গত ১১ মে দেশের অপর দুই মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন ও বাংলালিংকের দায়ের করা আপিলের নিষ্পত্তি করে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের তিন বিচারপতির বেঞ্চ একই আদেশ দিয়েছিলেন। ফলে মোবাইলের রিংটোন হিসেবে জাতীয় সংগীতের ব্যবহার করা যাবে না।

ওই দিনে রায়ে গ্রামীণফোনকে লিভার ফাউন্ডেশনে এবং বাংলালিংককে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি রিসার্চে ‘দাতব্য অনুদান’ ৩০ লাখ টাকা দিতে বলা হয়েছিল।

২০১০ সালের ৫ আগস্ট হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ মোবাইলের রিংটোন হিসেবে জাতীয় সংগীতের ব্যবহার নিষিদ্ধ করে এই তিন মোবাইল ফোন কোম্পানির প্রত্যেককে দাতব্য অনুদান হিসেবে ৫০ লাখ টাকা দিতে আদেশ দেন।