মেইন ম্যেনু

রিজার্ভ চুরির প্রতিবেদন প্রকাশ না হওয়ায় ক্ষুব্ধ সংসদীয় কমিটি

দশের ভাবমূর্তি রক্ষার্থে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়েছে সংসদীয় কমিটি। এ ঘটনায় সরকার কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন এখনও কেন প্রকাশ হয়নি তা নিয়েও ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে কমিটি।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ১৬তম বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠকে কমিটির সভাপতি ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক সভাপতিত্ব করেন। কমিটি সদস্য অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম, এ, মান্নান, মো. আব্দুল ওয়াদুদ, টিপু মুন্সি, মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, মো. শওকত চৌধুরী এবং আখতার জাহান বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, এই ঘটনায় জড়িতদের খুঁজে বের করাটা জরুরি। কিন্তু প্রতিবেদনটা কেন এখনও রেখে দিয়েছে। আমরা এটা কমিটির কাছে দিতে বলেছি।

তিনি আরও বলেন, কমিটির সব সদস্যরা মনে করে ৮০ মিলিয়ন ডলার যেটা গেছে সেটাতো গেছে। কিন্তু দেশের ভাবমূর্তিটা বড় বিষয়।

প্রসঙ্গত গত ফেব্রুয়ারিতে সুইফট মেসেজিং সিস্টেমের মাধ্যমে ভুয়া বার্তা পাঠিয়ে ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউ ইয়র্কে রক্ষিত বাংলাদেশের রিজার্ভের আট কোটি ১০ লাখ ডলার ফিলিপাইনে সরিয়ে নেওয়া হয়। বিষয়টি তদন্তের জন্য সাবেক গভর্নর মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিনকে প্রধান করে কমিটি গঠন করা হয়। গত ৩০ মে সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রীর কাছে এ সংক্রান্ত পূর্ণাঙ্গ তদন্ত প্রতিবেদন হস্তান্তর করেন কমিটির প্রধান।

সর্বশেষ গত ২১ জুলাই সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী মুহিত বলেন, কয়েকদিনের মধ্যে তদন্ত কমিটির রিপোর্ট প্রকাশিত হবে।

ফিলিপিন্স যাবে সংসদীয় কমিটি

চুরি যাওয়া অর্থ ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া তরান্বিত করার পদক্ষেপ হিসেবে রাজনৈতিক পর্যায়ে আলোচনা করতে ফিলিপাইনে যাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে সংসদীয় কমিটি। এ বিষয়ে আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ফিলিপাইনে নতুন সরকার এসেছে। সিনেট কমিটিও নতুন। টাকা ফেরত আনার বিষয়ে প্রক্রিয়া চলছে। ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক সহযোগিতা করছে। এখন ফিলিপাইনের রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গে আমরা কথা বলতে চাচ্ছি।