মেইন ম্যেনু

রিমান্ডের প্রথম রাতেই খাবার নিয়ে যে নাটক করলেন সাফাত ও সাদমান

রাজধানীর বনানীতে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে সম্ভ্রমহানীর মামলার মূল আসামি সাফাত আহমেদকে ছয় দিনের এবং সাদমান সাকিফকে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। তারা দুজনই বর্তমানে ডিবি পুলিশের রিমান্ডে রয়েছেন। রিমান্ডের প্রথম রাতেই তারা দুজন খাবার নিয়ে নাটক করেছেন বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের এক কর্মকর্তা।

তিনি বলেন, সাফাত ও সাদমানকে ডিবি অফিসের কারাগারের দক্ষিণ সেলে রাখা হয়েছে। শুক্রবার রাত সোয়া আটটার দিকে যথারীতি তাদের সঙ্গে একই রুমে থাকা আরো ৯ জনসহ মোট ১১ জনের জন্য সাদা ভাত, মাছ ও ডাল পাঠানো হয়। কিন্তু সাফাত ও সাদমান সে খাবার খায়নি।

পরে রাত সাড়ে ৯ টার দিকে তাদের এক আত্মীয় ডিবি অফিসে এসে মুরগির মাংস, সাদা ভাত, সবজি এবং গরুর মাংস দিয়ে যায়। সে খাবারই তারা দুজন খেয়েছেন। এমনকি তাদের আত্মীয় কয়েক ধরণের ফলমূল এবং শুকনা খাবারও ডিবি অফিসে দিয়ে গেছে বলেও জানিয়েছে সূত্রটি।

শুক্রবার রিমান্ডের প্রথম রাতেই তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলেও জানিয়েছে ডিবি পুলিশের সূত্রটি। এর আগে দুই অভিযুক্তকে ঢাকার মহানগর হাকিমের আদালতে হাজির করার পর পুলিশের পক্ষ থেকে দশ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন করা হয়েছিল। রিমান্ড আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটার আব্দুল্লাহ আবু।

ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে কাঠগড়ায় উঠেই কান্নায় ভেঙে পড়েন তারা। এসময় আইনজীবীরা তাদের সান্ত্বনা দিতে থাকেন। আইনজীবীরা তাদের ধৈর্য ধারণ করতে বলেন এবং তাদের কিছুই হবে না বলেও আশ্বস্ত করেন। আসামিপক্ষের আইনজীবী অভিযুক্তদের নির্দোষ দাবি করে রিমান্ডের আবেদন বাতিল করার এবং অভিযুক্তদের জামিনে মঞ্জুর করার অনুরোধ জানান।

কিন্তু মামলার প্রধান আসামি সাফাত আহমেদকে ছয় দিন ও তার সহযোগী সাদমান সাকিফকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি পেয়েছে পুলিশ। তদন্ত কর্মকর্তার করা রিমান্ড আবেদনের শুনানি করে ঢাকার মহানগর হাকিম রায়হানুল ইসলাম শুক্রবার এই আদেশ দেন।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই