মেইন ম্যেনু

রূপচর্চার ব্যাপারে যে ভুল ধারণাগুলো রয়েছে আপনারও

ত্বকের যত্নে আমরা অনেক কিছু করে থাকি। আবার ত্বক পরিচর্যায় এমন অনেক ব্যপার আছে যা আমরা বিশ্বাস ও করে থাকি। যা প্রকৃতপক্ষে সত্য নয়। রূপচর্চার এই বিষয়গুলো যুগ যুগ ধরে মানুষেরা চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করে আসছে। এই মতগুলোর আসলে কোন বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। আসুন তাহলে জেনে নিই সৌন্দর্যচর্চায় এসব ভুল ধারণাগুলো।

১। এক্সফলিয়েশন লোমের বৃদ্ধি ধীরে করে

আপনি হাত-পায়ের লোম তুলতে ওয়াক্সিং বা হেয়ার রিমুভার ব্যবহার করুন। অনেকে মনে করেন এক্সফোলিয়েশন বেশি করলে শরীরের লোমের বৃদ্ধির হার ধীর গতিতে হয়। কিন্তু এক্সফোলিয়েশন ত্বকের নিচের মেটাবলিজম পরিবর্তন করে না, যে লোমের বৃদ্ধি হ্রাস করবে।

২। এসপিএফ বেশি হলে ত্বক বেশি রক্ষা পায়

সানস্ক্রিন লোশনে ইউভিএ এবং ইউভিবি থেকে রক্ষা পাবার উপকরণ থাকে যা সূর্যের এসব ক্ষতিকর রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে। তাই বলে এই ধারণাটি ঠিক নয় যে বেশি এসপিএফ মানে বেশি সুরক্ষা।

৩। মেঘলা দিনে সানস্ক্রিন ব্যবহারের প্রয়োজন নেই

এই ধারনাটি আমাদের প্রায় সবার মধ্যে কাজ করে থাকে। সানস্ক্রিনের প্রধান কাজ হল সূর্যের ক্ষতিকর আল্ট্রা ভায়োলেট রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করা।সূর্য মেঘের আড়ালে ঢাকা পড়লেও তার আল্ট্রা ভায়োলেট রশ্মি পৃথিবীতে ঠিকই পৌঁছে যায়। তাই মেঘলা দিনে সানস্ক্রিন ব্যবহার করার প্রয়োজন নেই এইরূপ ধারণা করা একদমই উচিত নয়।

৪। শেভ করলে লোম মোটা হয়ে যায়

অনেকেরই ধারণা শেভিং এর ফলে লোম মোটা ও ঘন হয়ে বাড়ে। এটি একটি ভুল ধারণা। আমরা যখন শেভ করি তখন ব্লেডের ধারে লোমের আগা কেটে যায়। কিন্তু যখন এই লোমগুলি বাড়ে তখন কিছুটা ভোঁতা হয়ে বাড়ে তাই মনে হয় মোটা ও খড়খড়ে।

৫। যত দামী সামগ্রী তত ভাল

অনেক সময়ে দামি পণ্যে কেমিক্যালের পরিমান কম থাকে। তবে এই ধারণাটি ভুল যে দামি পণ্য মানে ভাল পণ্য। অনেক কম দামি পণ্য আছে যা ত্বকের যত্ন অনেক ভাল কাজ করে।

৬। সানস্ক্রিন শুধু কয়েক ধরণের ত্বকের জন্য প্রযোজ্য

সানস্ক্রিন নিয়ে আরও একটি ভুল ধারণা এটি। সানস্ক্রিন সব ধরণের জন্য মানানসই। ফর্সা, কালো, তৈলাক্ত, শুষ্ক, যে ধরণের ত্বক হোক না কেন সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে বাঁচতে সানস্ক্রিন ব্যবহার করা উচিত।

৭। ব্রণের মাথা ভেঙ্গে দিলে আর ব্রণ উঠবে না

কখন কি খেয়াল করেছেন কোন ব্রণের মাথা ভেঙ্গে দিলে ঠিক তার পাশে আরেকটি ব্রণ দেখা দেয়? এর কারণ হল ব্রণের ভিতরে থাকা জীবাণু পাশে ছড়িয়ে পড়ে আর সেখান থেকে নতুন আরেকটি ব্রণের দেখা দেয়।

তথ্যসূত্র: Skin Care Myths We Have To Stop Believing In, boldsky.com

5 SKIN CARE MYTHS YOU SHOULD STOP BELIEVING IN THE NEW YEAR, asarchcenter.com

Seven Skin Myths To Stop Believing Immediately, uk.lifestyle.yahoo.com

ফটো ক্রেডিটঃ vox.com