মেইন ম্যেনু

রূপচর্চায়ও অনন্য স্ট্রবেরি

শুধু দেখতে এবং খেতেই সুস্বাদু নয়, রূপচর্চায়ও বিশেষ কদর রয়েছে স্ট্রবেরির। স্ট্রবেরিতে রয়েছে ভিটামিন, মিনারেল এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্টের সমাহার। এগুলো শারীরিক বিভিন্ন উপকারের পাশাপাশি ত্বক এবং চুলের সুরক্ষায়ও বেশ কার্যকরী।

স্ট্রবেরিতে রয়েছে কার্যকর পরিষ্কারক উপাদান। বিশ্বের বিভিন্ন বিখ্যাত ব্র্যান্ডের ক্লিনজার, ফেইসওয়াশ, ফেইস মাস্ক তৈরিতে ব্যবহার করা হয় স্ট্রবেরির নির্যাস। স্ট্রবেরিতে থাকা ভিটামিন সি, স্যালিসাইলিক অ্যাসিড এবং এক্সফলিয়েন্টস মুখের মৃত কোষ দূর করে ত্বককে উজ্জ্বল করে এবং মুখের রোমকূপ শক্তিশালী করতে সাহায্য করে। এতে থাকা এলাজিক অ্যাসিড নামক এক ধরনের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ক্ষতি পুষিয়ে ত্বককে সজীব করে।

ব্রন, রোদে পোড়া ছোপ ছোপ কালো দাগ এবং মেছতা দূর করতে কার্যকরী স্ট্রবেরি। এতে রয়েছে ত্বক উজ্জ্বলকারক উপাদান। যা অসমান স্কিনটোন দূর করে ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনে। স্ট্রবেরি ব্লেন্ড করে এর রস আলাদা করে তুলার সাহায্যে মুখে লাগিয়ে ১০-১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। ঈষদুষ্ণ পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ত্বক উজ্জ্বল এবং দাগমুক্ত হবে।

স্ট্রবেরি স্কিন টোনার হিসেবেও ব্যবহার করা যায়। ২ চা চামচ স্ট্রবেরি রসের সঙ্গে ৫০ মিলি গোলাপ জল মিশিয়ে তৈরি করতে পারেন স্ট্রবেরি স্কিন টোনার। এই টোনার ত্বকের বলিরেখা, ব্রণের দাগ দূর করে। এটি ফ্রিজে ১০ দিন পর্যন্ত সংরক্ষণ করতে পারেন।

২-৩ টি স্ট্রবেরি, ২ চা চামচ মধু, কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে পেস্ট করে মুখে লাগান। ১৫ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই মাস্কটি ত্বককে ভেতর থেকে পরিষ্কার করে একে উজ্জ্বল এবং সুন্দর করে তোলে।

স্ট্রবেরিতে থাকা ফলিক এসিড, ভিটামিন বি৫ এবং ভিটামিন বি৬ চুল পরা রোধ করতে খুব কার্যকর। এক চা চামচ মধু, ৭-৮ টি স্ট্রবেরি এবং ৪-৫ চা চামচ টক দই ভালো মতো ব্লেন্ড করে এই মিশ্রণটি চুলে লাগান। এই হেয়ার মাস্কটি চুলের রুক্ষভাব দূর করে এবং চুল ঝরা রোধ করতে সাহায্য করে।

৭-৮ টি স্ট্রবেরি ভালো মতো পেস্ট করে এতে ১ টেবিল চামচ মেয়োনিজ মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি চুলে এবং তালুতে ১৫-২০ মিনিট রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন। এটি প্রাকৃতিক কন্ডিশনার হিসেবে কাজ করে এবং চুলের উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য স্ট্রবেরি এবং টক দই মিশিয়ে ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এই মাস্কটি ত্বকের তেল ভাব দূর করে নরম এবং মসৃণ করে।

চোখের ফোলাভাব এবং কালি দূর করতে ব্যবহার করতে পারেন স্ট্রবেরি। স্ট্রবেরি পাতলা করে স্লাইস করে কেটে চোখের নিচে ১০-১৫ মিনিট রাখুন। এরপর পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ভালো ফল পাবেন।

চুলে ময়েশ্চার যোগাতে ৪-৫টি স্ট্রবেরি এবং একটি ডিমের কুসুমের মিশ্রণ লাগান। ৩০ মিনিট রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন। এটি রুক্ষভাব দূর করে চুলকে নরম করে।