মেইন ম্যেনু

রূপচর্চায় লবণের অভাবনীয় ৬টি ব্যবহার

রান্নার একটি অপরিহার্য উপাদান হল লবণ। লবণ ছাড়া রান্না করার কথা চিন্তা করা যায় না। রান্না ছাড়াও ত্বক পরিচর্যায় ব্যবহার করা হয় এই লবণ! কথা শুনে চোখ কপালে উঠে গেলে? অবাক হওয়ার কিছু নেই, লবণেরও আছে অনেকগুলো সৌন্দর্য উপকারিতা। গোসলের পানিতে এক চামচ লবণ মিশিয়ে নিন। এটি ত্বকের মৃত কোষ দূর করবে, ব্রণ দূর করে ত্বক নরম করে থাকে। ত্বক চর্চায় লবণের এমনি কিছু ব্যবহার আসুন জেনে নেওয়া যাক।

১। ত্বকের মৃতকোষ দূর করা
৩ টেবিল চামচ মধুর সাথে ১ টেবিল চামচ লবণ মিশিয়ে নিন। এবার এটি ত্বকে ভাল করে ম্যাসাজ করে লাগান। চক্রাকারে ম্যাসাজ করে এই প্যাকটি লাগিয়ে নিন। এটি ত্বকের মৃত কোষ দূর করে দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে দিবে। দুই দিন পর পর এটি ব্যবহার করুন।

২। বডি স্ক্রাব
সিকি কাপ লবণ এবং আধা কাপ অলিভ অয়েল অথবা নারকেল তেল মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন। আপনি চাইলে এতে যেকোন এসেন্সিয়াল অয়েল মিশিয়ে নিতে পারেন। এটি কোন কাপড়ে অথবা লুফায় লাগিয়ে শরীর ম্যাসাজ করুন। এই স্ক্রাব রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করে ত্বক নরম এবং পরিষ্কার করে থাকে।

৩। স্কিন টোন উন্নত করা
দুই টেবিল চামচ লবণ গোলাপ জলের সাথে মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণটি দিয়ে দিনে দুই থেকে তিনবার মুখ ধুয়ে ফেলুন। গোলাপ জল আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করবে এবং লবণ ত্বকের ময়লা দূর করে দিবে।

৪। বলিরেখা দূর করতে
ত্বকে বলিরেখা দেখা দেওয়ার সাথে সাথে স্যালাইন পানি দিয়ে প্রতিদিন ত্বক ম্যাসাজ করুন। প্রতিদিন ১০ মিনিট ম্যাসাজ করুন। কিছুদিন করার পর দেখবেন আপনার ত্বকের বলিরেখা গায়েব হয়ে গেছে এবং ভবিষ্যতেও বলিরেখা পড়ছে না।

৫। ব্রণ দূর করতে
একটি পাত্রে এক টেবিল চামচ লবণ এবং এক টেবিল চামচ হলুদ গুঁড়ো এর সাথে কিছু পরিমাণের টকদই মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাকটি ব্রণের উপর লাগান। শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করুন। এক সপ্তাহের মধ্যে দেখুন ব্রণ দূর হয়ে গেছে।

৬। ব্ল্যাকহেডস দূর করতে
জেদী ব্ল্যাকহেডস দূর করে লবণ বেশ কার্যকর। এক টেবিল চামচ লবণ এবং গরম পানির সাথে মিশিয়ে সেটি দিয়ে ব্ল্যাকহেডসের স্থানগুলো ম্যাসাজ করুন। খেয়াল রাখবেন পানিতে যেন লবণ গলে না যায়। ৫ মিনিট ম্যাসাজ করার পর পানি দিয়ে ত্বক ধুয়ে ফেলুন।