মেইন ম্যেনু

রোকেয়া দিবস আজ : নিজ ভিটায় উপেক্ষিত নারী জাগরণের অগ্রদূত

আজ ৯ ডিসেম্বর। মহিয়সী নারী বেগম রোকেয়ার জন্ম ও মৃত্যু দিবস। ১৮৮০ সালের এই দিনে রংপুরের পায়রাবন্দ ইউনিয়নের খোর্দ্দ মুরাদপুর গ্রামে জমিদার পরিবারে বেগম রোকেয়া জন্ম গ্রহণ করেন। ১৯৩২ সালের ৯ ডিসেম্বর কোলকাতার ভাগলপুরে বেগম রোকেয়া মৃত্যু বরণ করেন। পরে সেখানকার শোদপুরে বেগম রোকেয়াকে সমাহিত করা হয়।

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও রংপুর জেলা প্রশাসনের আয়োজনে রোকেয়ার জন্মভূমীতে জাতীয়ভাবে দিবসটি পালনের জন্য প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। দিবসটিকে ঘিরে ৩ দিনব্যাপী নানা কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানমালার মধ্যে প্রথমদিন বুধবার সকাল ৯ টায় বেগম রোকেয়ার স্মৃতি স্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ, ১০ টায় পায়রাবন্দ জামে মসজিদে মিলাদ মাহফিল, ১১ টায় স্বেচ্ছায় রক্তদান ও রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা, বিকাল সাড়ে ৩ টায় বিতর্ক প্রতিযোগীতা (সংসদীয়), ৪টায় আনুষ্ঠানিকভাবে ৩ দিনব্যাপী রোকেয়া মেলার শুভ উদ্বোধন করবেন রংপুর বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) কাজী হাসান আহম্মেদ।

এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন রংপুর জেলা পরিষদের প্রশাসক মমতাজ উদ্দিন আহম্মেদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ’র আন্তর্জাতিক বিষয়ক কেন্দ্রিয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক রাশেক রহমান, মিঠাপুকুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাকির হোসেন সরকার।

এতে সভাপতিত্ব করবেন রংপ্রু জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রাহাত আনোয়ার। স্বাগত বক্তব্য রাখবেন মিঠাপুকুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাহলাহ্উদ্দিন। “বেগম রোকেয়ার লেখনিতে মানবাধিকার” বিষয়ক প্রবন্ধটি উপস্থাপন করবেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উইমেন এন্ড জেন্ডার স্ট্যাডিজ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীর।

প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পীরগাছা খন্দকার আব্দুল করীম মিয়া কলেজের অধ্যক্ষ এ,কে,এইচ ফকরুল আনাম (বেঞ্জু)। বিকাল সাড়ে ৫ টায় প্রামান্য চিত্র প্রদর্শনী ও সন্ধা ৬ টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা, সাড়ে ১০টায় কবিতা আবৃতি, ১১ টায় রচনা প্রতিযোগীতা, বিকাল ৫টায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বেগম রোকেয়া বিশ্ব বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. একেএম নুর-উন-নবী, বিশেষ অতিথি থাকবেন রংপুর পুলিশ সুপার আব্দুর রাজ্জাক পিপিএম, রংপুর স্থানীয় সরকার উপ-পরিচালক মোছাঃ সুলতানা পারভীন।

এতে সভাপতিত্ব করবেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) তনিমা তাসমিন, “বেগম রোকেয়া এবং বাংলাদেশে নারী অধিকার ও বিদ্যমান চ্যালেঞ্জ” প্রবন্ধটি উপস্থাপন করবেন মহিলা আইনজীবি সমিতির বিভাগীয় প্রধান কোহিনুর বেগম, প্রধান অলোচক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বেগম রোকেয়া কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক প্রফেসর মোঃ মোজাম্মেল হক। সাড়ে ৫টায় প্রামান্য চিত্র প্রদর্শনী ও ৬টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

মেলার শেষ দিন শুক্রবার বিকাল ৩ টায় বিতর্ক প্রতিযোগীতা, ৪টায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি থাকবেন বিভাগীয় কমিশনার মুহাম্মদ দিলোয়ার বখ্ত। বিশেষ অতিথি থাকবেন রংপুর রেঞ্চের ডিআইজি মোঃ হুমায়ুন কবির, এতে সভাপতিত্ব করবেন রংপুর জেলা প্রশাসক মোঃ রাহাত আনোয়ার।

“বর্তমান প্রেক্ষাপটে বেগম রোকেয়ার প্রাসঙ্গিকতা” প্রবন্ধটি উপস্থাপন করবেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক প্রফেসর ড. সরিফা সালোয়া দিনা।

প্রধান আলোচক থাকবেন কাউনিয়া ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যাপক ড. শাশ্বত ভট্টাচার্য। বিকেলে ৫ টায় পুরস্কার বিতরণী ও পদক বিতরণ, সন্ধা সাড়ে ৬টায় নাটিকা এবং ৭ টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হবে বেগম রোকেয়া দিবসের কর্মসুচী।