মেইন ম্যেনু

রোহিঙ্গাদের তথ্য চেয়ে ৩ মন্ত্রণালয়কে ইসির চিঠি

ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গাদের অন্তর্ভুক্তি রোধ করতে স্বরাষ্ট্র, ত্রাণ ও দুর্যোগ এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে রোহিঙ্গা সম্পর্কিত তথ্য সরবরাহ করার জন্য চিঠি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

রোববার সিনিয়র সহকারী সচিব মাহফুজা আক্তার স্বাক্ষরিত চিঠিটি তিন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব, এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক, কক্সবাজার, বান্দরবন ও রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক কার্যালয় এবং শরণার্থী ক্যাম্পগুলোতেও চিঠি পাঠানো হয়েছে।

গত বছর রোহিঙ্গারা ভোটার হচ্ছে, তাতে জনপ্রতিনিধিরাও সম্পৃক্ত আছেন- প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এ ধরনের গোয়েন্দা প্রতিবেদন আসার পর ইসি নানা উদ্যোগ নিচ্ছে বলেন ইসিসূত্র জানায়।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, রোহিঙ্গাবিশেষ এলাকা ও অন্য উপজেলাগুলোতে ভোটার তালিকায় বিভিন্ন উপায়ে রোহিঙ্গাদের অন্তর্ভুক্তির প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে বিভিন্ন‍ সূত্রে জানা গেছে। ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গা অন্তভুক্তি রোধকল্পে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে রোহিঙ্গাদের বিষয়ে তথ্য সংরক্ষিত থাকলে ইসির নির্ধারিত ছকের মাধ্যমে তথ্য সরবরাহ করতে বলা হয়েছে। চিঠিতে রোহিঙ্গাদের নাম, বাবার নাম, স্বামীর নাম, ঠিকানা ও জন্মতারিখ এ পাঁচটি তথ্য চেয়েছে ইসি।

ছক মোতাবেক তথ্য দেয়া সম্ভব না হলেও সংগ্রহীত তথ্য (যেভাবে আছে) সফট কপিসহ সরবরাহের জন্য অনুরোধও করেছে ইসি।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, রোহিঙ্গা ভোটার ঠেকাতে ইসি বদ্ধ পরিকর। এ কারণে বিভিন্ন সময়ে তারা বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করছে। এছাড়া চলমান ভোটার তালিকা হালনাগাদে রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকায় নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহ বাড়ার কারণে কমিশনে উদ্বেগ বেড়েছে।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন ২০১৪ সালে রোহিঙ্গা ভোটার ঠেকাতে কক্সবাজার, বান্দবন পার্বত্য জেলা ও রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার ১৪টি উপজেলাকে রোহিঙ্গা অধ্যুষিত বিশেষ এলাকা হিসেবে ঘোষণা করে।