মেইন ম্যেনু

রোহিত ও ধাওয়ানকে বাদ পড়া থেকে বাঁচালেন কোহলি!

আগামী ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে ভারত। এই সিরিজের জন্য ভারতীয় দল ঘোষিত হল। যদিও দলে কোনও পরিবর্তন হয়নি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে যে ১৭ জনের দল গিয়েছিল তার থেকে স্টুয়ার্ট বিনি ও শার্দুল ঠাকুরকে বাদ দিয়ে ১৫ জনের দল ঘোষিত হয়েছে। রোহিত শর্মা ও শেখর ধাওয়ান দলে রয়ে গিয়েছেন।

জানা গিয়েছে, অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও কোচ অনিল কুম্বলে উইনিং কম্বিনেশন ভাঙতে চাননি। নির্বাচকদের সে কথা তারা জানিয়ে দেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে সাফল্যও দলে কোনও পরিবর্তন আনার সুযোগ নির্বাচকদের দেয়নি। মুখ্য নির্বাচক সন্দীপ পাতিল বলেছেন, বিদেশে যে দল ভালো ফল করেছে, সেই দলই ধরে রাখা হল। আসলে খুব বেশি বার তো ভারতীয় দল বিদেশে এত ভালো খেলেনি।

যদিও দল নির্বাচনী সভায় সুনজরে না থাকা ওপেনার গৌতম গাম্ভীর এবং মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মণীষ পাণ্ডের নাম শিখর ও রোহিতের পরিবর্ত হিসেবে আলোচিত হয়েছিল। বর্তমানে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন গম্ভীর। চলতি দলীপ ট্রফিতে পর পর চারটি ইনিংসে হাফ সেঞ্চুরি (৭৭,৯০,৫৯ এবং ৯৪) হাঁকিয়েছেন নাইট রাইডার্স অধিনায়ক। মণীশ পাণ্ডের ফর্মও নজর কেড়েছে। অস্ট্রেলিয়ায় ভারতীয় এ দলে খেলছেন তিনি।সফরে এখনও পর্যন্ত দলের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেছেন তিনি।

কিন্তু কোহলি ও কুম্বলে রোহিত ও শেখরকে দলে রাখার পক্ষেই সওয়াল করেন। এক্ষেত্রে যুক্তি দেওয়া হয়, রোহিত টেস্ট ক্রিকেটে যথেষ্ট সুযোগ পায়নি। কিন্তু দীর্ঘ মেয়াদে রোহিত তার প্রতিভা অনুযায়ী পারফর্ম করতে পারলে দলের পক্ষেই ভালো হবে।

কিন্তু এক্ষেত্রে একটা প্রশ্ন উঠছে। কেননা, রোহিতের প্রতিভা নিয়ে সন্দেহের অবকাশ নেই। কিন্তু প্রশ্নটা তাঁর অ্যাটিটিউড নিয়ে। দেখা গেছে, উইকেট ছুঁড়ে দেওয়াটা প্রায় অভ্যেসে পরিণত হয়ে গিয়েছে রোহিতের। টেস্ট ক্রিকেটে সফল হওয়ার মতো ধৈর্য রোহিতের রয়েছে কিনা, তার এই মনোভাব থেকে প্রশ্ন উঠছে।

এটা সত্যি যে টেস্ট ক্রিকেটে খুব বেশি সুযোগ পাননি রোহিত। কিন্তু একজন আন্ডার পারফর্মিং ক্রিকেটারকে কতদিন প্রথম এগারোয় রাখা হবে, সেই প্রশ্নও উঠছে। তাকে তো ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের শেষ ম্যাচে বাদ দেওয়া হয়েছিল।

শিখর ধবনের ফর্মও চিন্তার বিষয়। টেস্টে তার শেষ সেঞ্চুরি এসেছে গত বছরের আগস্টে গলে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের শেষ টেস্টেও তাকেও দলে নেওয়া হয়নি। ক্যারিবিয়ান সফরে তার একটাই ৫০-এর বেশি রানের ইনিংস ছিল। দলীপ ট্রফিতে সেভাবে ফর্মে দেখা যাচ্ছে না থাকে। যেখানে চেতেশ্বর পূজারা অপরাজিত ২৫৬ রানের ইনিংস খেলছেন, সেখানে শিখর হাফ সেঞ্চুরিও করতে পারেননি।

তবে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে পারফর্ম না করতে পারলে বাদ পড়ার খাঁড়া ঝুলছে শেখরের সামনে। সন্দীপ পাতিলের কথাতেও সেরকমই ইঙ্গিত। তিনি বলেছেন, শেখরের কাছ থেকে ভালো পারফর্ম্যান্স আশা করছি। শুধু শিখর নয়, যে ১৫ জনকে বেছে নেওয়া হয়েছে, তাদের প্রত্যেকের ওপর আস্থা রয়েছে। ভারতের শুধু এই ১৫ জনই রয়েছে এমন নয়। আমাদের ভাণ্ডারে আরও ভালো প্লেয়ার রয়েছে। – এবিপি