মেইন ম্যেনু

রৌমারীতে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

কুড়িগ্রামের রৌমারী সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) গুলিতে বাংলাদেশি যুবক বাহারুল ইসলাম (৩০) নিহত হয়েছেন। এসময় অপর পাচারকারি জাকির হোসেন (২৫) আহত হয়েছেন। সীমান্ত এলাকায় টহল জোরদার করেছে বিজিবি।

রোববার ভোরে আন্তর্জাতিক সীমান্ত পিলার ১০৫৫এর ৪ (এস) নিকট পূর্বছাট কড়াইবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি জানাজানি হলে পরিবারের লোকজন দাঁতভাঙ্গা বিজিবি ক্যাম্পে খবর দেয়। বিজিবি মরদেহ উদ্ধার করে সীমান্তে টহল জোরদার করে।

দাতঁভাঙ্গা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সামছুল হক এবং ৩নং ইউপি সদস্য মিজানুর রহমান জানান, নিহত বাহারুল ইউনিয়নের পূর্বছাট কড়াইবাড়ি গ্রামের বৃদ্ধ বক্তার হোসেনের ছেলে। নিহত বাহারুলের পিট দিয়ে প্রবেশ করে বুক দিয়ে একটি গুলি বের হয়ে যাবার চিহ্ন রয়েছে। এসময় একই এলাকার ছপিয়াল আলীর ছেলে জাকির হোসেন আহত হয়েছেন। তাকে অজ্ঞাত স্থানে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

তিনি দাবি করেন, বিএসএফ সীমান্ত অতিক্রম করে এসে গুলি করে মানুষ হত্যা করে। তারা এ হত্যাকাণ্ডের বিচার চান।

রৌমারী দাঁতভাঙ্গা বিওপি কমান্ডার আব্দুল আজিজ জানান, বাহারুল ইসলাম (৩০) একজন চোরাকারবারি গ্রুপের সদস্য। চোরাচালানের জন্য তিনি ভোরে সীমান্ত অতিক্রম করার সময় বিএসএফের গুলিতে নিহত হয়। আহতের বিষয়ে আমাদের জানা নেই। মরদেহ উদ্ধার করে রৌমারী পুলিশে খবর দেয়া হয়েছে।

জামালপুরস্থ বিজিবির ৩৫ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্নেল মোহাম্মদ রফিকুল হাসান জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। তবে কি ধরনের আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে তিনি মারা গেছেন তা স্পষ্ট হবার জন্য বিজিবি সদস্যকে পাঠানো হয়েছে।