মেইন ম্যেনু

র‍্যাবের হেফাজতে মঞ্জুরি কমিশন কর্মকর্তাকে হত্যার অভিযোগ

বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের এক কর্মকর্তাকে র‍্যাবের হেফাজতে থাকা অবস্থায় হত্যা করা হয়েছে বলে তার পরিবার অভিযোগ করেছে।

প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে প্রায় দু সপ্তাহ আগে মঞ্জুরি কমিশনের সহকারী পরিচালক ওমর সিরাজকে আটক করে র‍্যাব।

আদালতের নির্দেশে গত দুদিন ধরে তাকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছিল র‍্যাব।

তবে ওমর সিরাজকে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ অস্বীকার করেছে র‍্যাব।

ঢাকায় র‍্যাবের একজন কর্মকর্তা সুমন আহমেদ শাওন বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, অসুস্থ হয়ে পড়ায় ওমর সিরাজকে গতকাল বিকেলে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে নেয়া হয়। সেখানেই তিনি মারা গেছেন।

কিন্তু ওমর সিরাজের স্ত্রী সাবিনা পারভিন ঢাকার কয়েকটি টেলিভিশন চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তাঁর স্বামীর কোন হৃদরোগের সমস্যা ছিল না। তাকে এত নির্যাতন করা হয়েছে যে তার ফলেই হয়তো তিনি মারা গেছেন।

ওমর সিরাজের ভাই আশরাফুল হকও গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তাঁর ভাইকে পরিকল্পনা করে প্রশ্নপত্র কেলেংকারির ঘটনায় ফাঁসানো হয়েছে এবং র‍্যাবের মাধ্যমে হত্যা করা হয়েছে।

এদিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের মর্গে ওমর সিরাজের লাশের সুরতহাল ও ময়না তদন্ত শেষ হয়েছে।

ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ সোহেল মাহমুদ জানিছেন, হার্ট আ্যাটাকে ওমর সিরাজের মৃত্যু হয়েছে কিনা তা পরীক্ষা না করে বলা কঠিন। তবে শরীরের কিছু জখমের চিহ্ন থাকার কথা তিনি স্বীকার করেছেন। তবে সোহেল মাহমুদ বলেছেন, এগুলো মৃত্যু হওয়ার মত গুরুতর জখম নয়।বিবিসি বাংলা