মেইন ম্যেনু

‘লক্ষী ছেলে’ মাশরাফি : অনন্ত জলিল

ঢালিউডের আলোচিত্র চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল। কিছুদিন আগে তিনি মাশরাফির দলে যোগ দিয়েছিলেন। সেরা একাদশ কিংবা স্কোয়াডে ছিলেন না কিন্তু মাঠের বাইরে ঠিকই ছিলেন এ চিত্রনায়ক। ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের জার্সি পরেন অনন্ত জলিল ও তার স্ত্রী বর্ষা।

ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর হওয়ার পেছনের গল্প গত মঙ্গলবার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ‘ভিক্টোরি নাইট’ এ শুনান চিত্রনায়ক অনন্ত। এ সময় তিনি বলেন, ‘আমি সব সময় নেতিবাচক দিক থেকে দূরে থাকি। মাশরাফি সম্পর্কে আজ পর্যন্ত কোনো নেতিবাচক কথা শুনিনি। ও (মাশরাফি) ‘লক্ষী’ একটা ছেলে। মাঠে সব সময় শান্ত থাকে। আমাকে আর বর্ষাকে যখন অ্যাম্বাসেডর হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয় তখন দলে মাশরাফি আছে শুনে আমরা রাজী হয়ে যাই।’

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের দল পরিচিত অনুষ্ঠানে অনন্ত জলিল বলেন, ‘অসম্ভবকে সম্ভব করা মাশরাফি আর ওর দলের কাজ।’

মাশরাফি অসম্ভব কাজটিকে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে পালন করায় বেশ খুশি অনন্ত জলিল। তাই তার উচ্ছ্বাসটিও ছিল দেখার মতো। এ সময় অনন্ত বলেন, ‘মাশরাফির দল খুবই ভালো খেলেছে। তার জন্যেই আজকে তারা চ্যাম্পিয়ন। আমি সেদিনই বলেছিলাম মাশরাফিরা অসম্ভবকে সম্ভব করবে। সেই কাজটি ওরা করেছে। খুব সহজেই ওরা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এক বলে যখন এক রানের প্রয়োজন ছিল তখন পুরো কুমিল্লবাসী ও যারা কুমিল্লার সমর্থক ছিলাম সবাই অলোক কাপালির দিকে তাকিয়ে ছিলাম। সে আমাদের সবাইকে জয় উপহার দিয়েছে। তাকেও ধন্যবাদ দিতে চাই।’



« (পূর্বের সংবাদ)