মেইন ম্যেনু

লবণ পানির অসাধারণ কয়েকটি ব্যবহার

পানির সঙ্গে লবণ মিশিয়ে ঠিক কী কাজে লাগানো যেতে পারে? গরমপানির সঙ্গে লবণ মিশিয়ে গড়গড়া করলে দাঁতের ব্যথা কমে। আবার হজমের সমস্যা হলে লবণ পানির সঙ্গে একটু লেবুর রস মিশিয়ে নিয়ে পান করলে সমস্যা দূর হয়। কিন্তু আমাদের দৈনন্দিন বিভিন্ন কাজের ক্ষেত্রে ছোটখাট অনেক সমস্যার সমাধানও মিলবে এই লবণ পানিতেই। কীভাবে? চলুন তবে জেনে নিই-

রান্নার সময় চুলার আশেপাশে এবং চুলার উপরে তেল মশলা পড়ে তেলতেল ভাব হতেই পারে। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে এই তেল চিটচিটে ভাব সাবান পানি দিয়ে পুরোপুরি পরিষ্কার করা সম্ভব নয়। কুসুম গরম পানিতে লবণ গুলিয়ে একটি কাপড় ভিজিয়ে ভালো করে মুছে নিন। সমস্যার সমাধান।

লোহার জিনিসের উপরে এনামেলের প্রলেপ লাগানো থাকে যার ওপর খুব সহজেই দাগ পড়ে যায়। এই সমস্যা সমাধানে রাতে অর্ধেকটা পাত্র পানি দিয়ে ভরে এতে ১/৪ কাপ লবণ দিয়ে পুরো রাত রেখে দিন। সকালে উঠে পাত্রটি চুলায় দিয়ে পানি ফুটিয়ে নিন এবং পানি ফেলে সাধারণ ডিশ স্ক্রাবার দিয়ে আলতো ঘষেই তুলে ফেলতে পারবেন পোড়া দাগ।

ফ্রিজ অনেক দুর্গন্ধ হয়ে গিয়েছে? খুব সহজেই দূর করে দিতে পারবেন লবণ কুসুম গরম পানি দিয়ে ফ্রিজ ধুয়ে। এতে ফ্রিজের দুর্গন্ধ অনেকাংশেই দূর হয়ে যাবে এবং ফ্রিজে একধরণের তরতাজা ভাব চলে আসবে, খাবারেও গন্ধ হবে না।

কাপড়ে ঘামের দাগ লেগে থাকলে তা দেখতে খুবই বাজে দেখায়। এই সমস্যা সমাধানে ১/৪ লিটার গরম পানিতে ৪ টেবিল চামচ লবণ গুলিয়ে তা দাগের উপর লাগিয়ে নিন স্পঞ্জ করে। এভাবে কয়েকবার করুন এবং শুকিয়ে গেলে কাপড়ে দাগ দেখতে পাবেন না।

ডিম সেদ্ধ করে খোসা ছাড়ানোর সময় সঠিকভাবে ছাড়ানো সম্ভব হয় না অনেক সময়। এই ঝামেলা থেকে মুক্তি পেতে চাইলে লবণ পানিতে ডিম সেদ্ধ করুন, খুব সহজেই সেদ্ধ ডিমের খোসা ছাড়িয়ে নিতে পারবেন।

কুসুম গরম পানিতে লবণ গুলিয়ে তা দিয়ে গার্গল করে নিন। খুব দ্রুত দাঁতের ব্যথা ও ঠাণ্ডা লেগে গলার ব্যথা থেকে মুক্তি পেয়ে যাবেন খুব সহজেই।

বেশিদিন দুধ রেখে দিলে তা পরবর্তীতে জ্বাল দেয়ার সময় ফেটে যায়। এই সমস্যা সমাধানে দুধে ১ চিমটি লবণ সামান্য পানিতে মিশিয়ে দিয়ে দিন। বেশ লম্বা সময় দুধ নষ্ট হবে না।

আলু ও আপেল কেটে রাখলে বাদামী হয়ে যায় কিছুক্ষণের মধ্যেই। এক কাজ করুন, লবণ পানিতে ডুবিয়ে রাখুন। দেখবেন অনেকটা সময় বাদামী দাগ পড়ছে না।