মেইন ম্যেনু

লিভার সিরোসিসের সম্ভাবনা কমাবে কফি

মানব দেহের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ হলো লিভার। কিন্তু ভয়ের ব্যাপার হলো, লিভার সিরোসিস এমন একটি সমস্যা যাতে একবার আক্রান্ত হলে পরিত্রাণের সম্ভাবনা খুবই কম। প্রাণঘাতী এই সমস্যাটি সাধারণত দেখা যায় অপরিমিত খাদ্য ও অ্যালকোহল গ্রহণের ফলাফল হিসেবে। তবে সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে, এই সমস্যাটির ঝুঁকি কমিয়ে রাখতে পারে আমাদের অতি পরিচিত পানীয়, কফি।

কফির যে বেশকিছু উপকারিতা আছে আমরা তা জানি। ইংল্যান্ডের একটি গবেষণায় দেখা যাচ্ছে তা লিভারে জন্যও ভালো। পূর্বের নয়টি গবেষণা থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হয় সাম্প্রতিক এই গবেষণায় ব্যবহারের জন্য। প্রায় ৪ লক্ষ ৩০ হাজার অংশগ্রহণকারীর তথ্য থেকে দেখা যায়, যারা প্রতিদিন দুই কাপ কফি পান করে থাকেন তাদের লিভার সিরোসিসের ঝুঁকি কমে যায় ৪৪ শতাংশ।

লিভার সিরোসিসের যেহেতু কোনও প্রতিকার নেই এবং এটি মৃত্যুর কারণ হতে পারে, সুতরাং একে প্রতিরোধ করাটাই সবচাইতে ভালো উপায়। কফি বেশ প্রচলিত, সহজলভ্য এবং সস্তা একটি পানীয়। এর মাধ্যমে লিভার সিরোসিস প্রতিরোধ করা গেলে তা খুবই ভালো সংবাদ।

লিভার সিরোসিস কীভাবে আপনার ক্ষতি করতে পারে? সিরোসিসের প্রক্রিয়ায় লিভারের টিস্যুগুলো শক্ত হয়ে যায় এবং ধ্বংস হয়। প্রতি বছর পৃথিবীজুড়ে এক মিলিয়নেরও বেশি মানুষ মারা যায় এই প্রক্রিয়ায়। লিভার সিরোসিস হতে পারে হেপাটাইটিস ইনফেকশন থেকে, অতিরিক্ত অ্যালকোহল পান, ইমিউন ডিজঅর্ডার এবং ফ্যাটি লিভার টিস্যুর কারণে। ওবেসিটি এবং ডায়াবেটিসের পাশাপাশি দেখা দিতে পারে এই সমস্যাটি।

সাউথহ্যাম্পটন ইউনিভার্সিটির ডক্টর অলিভার কেনেডি এবং তার গবেষকদল কফি সংক্রান্ত বিভিন্ন গবেষণার তথ্য থেকে এই ফলাফল বের করতে সক্ষম হন। এসব গবেষণায় মোট ১,৯৯০ জন লিভার সিরোসিসের রোগী পাওয়া গেছিলো। এই নয়টি গবেষণার আটটিতে দেখা যায় কফি পানের ফলে লিভার সিরোসিসের ঝুঁকি কমে। তবে একটিমাত্র গবেষণায় দেখা যায়, কফি পান করলেও লিভার সিরোসিসের ঝুঁকি বজায় থাকে।

গবেষকেরা দেখেন, কফি পান না করার চাইতে প্রতিদিন এক কাপ কফি পান করলে লিভার সিরোসিসের ঝুঁকি কমে ২২ শতাংশ। দুই কাপ পান করলে ৪৩ শতাংশ পর্যন্ত কমে এই ঝুঁকি। তিন কাপ পান করলে ঝুঁকি কমে ৫৭ শতাংশ এবং চার কাপ পান করলে ঝুঁকি কমে ৬৫ শতাংশ। তবে একটি গবেষণায় দেখা যায় ফিল্টারড কফির উপকারিতা, সেদ্ধ করা কফির চাইতে বেশি হয়।

তবে এই ফলাফল পাওয়া গেছে তার মানেই এই নয় যে আপনি বেশি করে চিনি এবং ক্রিম দিয়ে কফি পান করা শুরু করবেন দিনে কয়েক বার। ঠিক কী ধরণের কফি লিভার সিরোসিসের ঝুঁকি কমাতে পারে তার ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত নন গবেষকেরা। কফির মাঝে শত শত রাসায়নিক উপাদান থাকে এবং এর কোনটা লিভার সিরোসিস কমাতে কাজ করে তা এখনো অজানা।

আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হলো, কফি পান করাই যথেষ্ট নয়। যেসব অভ্যাস আপনার লিভার ধ্বংস করে দেয় সেসব অভ্যাস বাদ দিতে না পারলে কফি পান করে আপনার খুব একটা সুবিধা হবে না।