মেইন ম্যেনু

শরণার্থী নিয়ে ভুল বার্তা, ক্ষমাপ্রার্থী প্রিয়াংকা

পর্যটন বিষয়ক এক ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদ মডেল হয়ে বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন ভারতীয় অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া।

ওই ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদের ছবিতে প্রিয়াংকাকে একটি স্লিভলেস ট্যাংক টপে দেখা গেছে। আর ওই টপটিতে লেখা ছিল চারটি শব্দ। শরণার্থী, অভিবাসী, বহিরাগত এবং পর্যটক। প্রথম তিনটি শব্দ লাল কালি দিয়ে কেটে দেয়া হয়েছে। বেঁচে থাকা একমাত্র শব্দটি পর্যটক।

আর এ ঘটনাতেই তোলপাড়। সিরিয়ার শরণার্থী সংকটের প্রেক্ষাপটে, ট্যাংক টপের বক্তব্য নিয়ে শুরু হয় ব্যাপক সমালোচনা।

সমালোচকেরা বলেছেন, শরণার্থী হওয়াটা কারো ইচ্ছার ওপর নির্ভর করেনা। আর ট্যাংক টপের ওই বার্তা বস্তুত সমাজের একটি সুবিধাজনক অবস্থানের নির্দেশক।

বিষয়টিকে অশোভন আখ্যা দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই লিখেছেন, এই মূহুর্তে সিরিয় শরণার্থীরা যে অমানবিক জীবনযাপন করছেন, সেসময় এমন বক্তব্যের মাধ্যমে তাদের হেয় করা হয়েছে। মিস চোপড়ার পোশাককেও আপত্তিকর বলেছেন কেউ কেউ।

অনলাইন ও অফলাইনের তুমুল এ সমালোচনার মুখে শেষ পর্যন্ত প্রিয়াংকা ও কনডে ন্যাস্ট ম্যাগাজিন কর্তৃপক্ষ দুঃখ প্রকাশ করেছে ও ক্ষমা চেয়েছে।

ভারতীয় বেসরকারি টেলিভিশন এনডিটিভিকে মিস চোপড়া বলেছেন, ম্যাগাজিনটির মূল উদ্দেশ্য ছিল বিদেশীদের সম্পর্কে সাধারণ মানুষের মনে যে অহেতুক ভয় থাকে, সে বিষয়টির দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করা। শরণার্থীদের সেন্টিমেন্টকে আহত করা নয়।

এ মাসের শুরুতে প্রিয়াংকা চোপড়া ম্যাগাজিনের কাভারের ছবিটি টুইটারে পোস্ট করেন। এরপরই ভারত জুড়ে শুরু হয় সমালোচনা।



« (পূর্বের সংবাদ)