মেইন ম্যেনু

শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা

ভারতীয় উপমহাদেশের নারীদের প্রথম সাপ্তাহিক ‘বেগম’ পত্রিকার সম্পাদক নূরজাহান বেগমের মরদেহে সর্বস্তরের মানুষ শ্রদ্ধা জানিয়েছে।

আজ সোমবার বিকেল ৪টার দিকে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য তার মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আনা হয়। সেখানে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনতা তাকে শ্রদ্ধা জানান।

বিএনপির পক্ষ থেকে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে একটি দল, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, শিল্পকলা একাডেমী, বাংলা একাডেমি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে নূরজাহান বেগমের মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

মরহুমার মরদেহ বিকেল ৫টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাখা হয়। এরপর গুলশান-১ কেন্দ্রীয় মসজিদে জানাজার জন্য নেওয়া হয়েছে। সেখানে বাদ মাগরিব জানাজা শেষে মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী করবস্থানে দাফন করা হবে।

সকালে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তার বয়স হয়েছিল ৯১ বছর।

গত ৫ মে বিকেলে অসুস্থ অবস্থায় নূরজাহান বেগমকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সে সময় তিনি ঠিকভাবে শ্বাস নিতে পারছিলেন না। ৭ মে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নিয়ে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়।