মেইন ম্যেনু

‘শান্তিরক্ষীদের বেতন কাটা হবে না’

জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে কর্মরত সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সদস্যদের বেতন থেকে ১০ শতাংশ কাটা হবে না। এ লক্ষ্যে একটি সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। জাতীয় সংসদে বুধবার অনুষ্ঠিত প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়।

কমিটির সভাপতি সাবেক সেনা কর্মকর্তা মোহাম্মদ সুবিদ আলী ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খান, মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এবং হোসনে আরা বেগম অংশ নেন।

বৈঠক শেষে হোসনে আরা সাংবাদিকদের বলেন, গত বছর বাংলাদেশের শান্তিরক্ষীদের কার্যক্রম পরিদর্শনে যখন কমিটি কঙ্গো ও আইভরি কোস্ট সফর করে, তখন সেখানে কর্মরত শান্তিরক্ষীরা বিষয়টি কমিটির কাছে উত্থাপন করে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে এ সুপারিশ করা হয়েছে। তিনি বলেন, যেহেতু তারা সেখানে অনেক ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেন, সেজন্য তাদের বেতন থেকে ১০ ভাগ কেটে না নেওয়ার জন্য সুপারিশ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৩১ ডিসেম্বরের হিসাবে জাতিসংঘের ১৬টি মিশনে মোট ১ লাখ ২৫ হাজার ৯৭ জন শান্তিরক্ষী কাজ করছেন, যাদের মধ্যে বাংলাদেশির সংখ্যা সবচেয়ে বেশি-আট হাজার ৪৯৬ জন। শান্তি মিশনে থাকা এই বাংলাদেশিদের মধ্যে ৭ হাজার ২৫৫ জন সশস্ত্র বাহিনীর, এক হাজার ১৭২ জন পুলিশ এবং ৬৯ জন সামরিক বিশেষজ্ঞ রয়েছেন। দীর্ঘ দেনদরবারের পর ২০১৩ সালে শান্তিরক্ষীদের বেতন পৌনে ৭ শতাংশ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় জাতিসংঘ।

প্রতিরক্ষা সচিব কাজী হাবিবুল আউয়াল, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক, নৌবাহিনী প্রধান ভাইস অ্যাডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল মাহফুজুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।