মেইন ম্যেনু

শারীরিক সম্পর্কের সময় প্রেমিকাকে হত্যা করল প্রেমিক !

এটা নাকি তাঁরা হামেশাই করতেন। তাই বুঝতে পারেননি। ঘটনার দিনও সেক্সের সময় জোরজবরদস্তি প্রেমিকার মুখে শশা ঠুসে দিয়েছিলেন। শ্বাসরোধ হয়ে মারা যান প্রেমিকা রিকা (৪৬)।
প্রেমিকাকে খুনের দায়ে জেল হল ওই ব্যক্তির। ৪৬ বছরের অলিভার ডায়েটমন নামে ওই ব্যক্তিকে অনিচ্ছাকৃত খুনের দায়ে ১ বছর ৮ মাসের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। সঙ্গে রয়েছে ৬৭৪৯ ডলারের জরিমানাও।

ঘটনাটি ২০১৪ সালের ১৯ জুলাই। জার্মানিতে। ৪৬ বছরের ডায়েটমনের সঙ্গে রিকার পরিচয় ২০০৪ সাল থেকে। ডায়েটমন বিবাহিত। দুই সন্তানের বাবা। ক্রমে রিকার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ঠ হয়। ঘটনার দিন ডায়েটমনের স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে বাইরে গিয়েছিলেন।

সেই সুযোগে রিকা তাঁর বাড়িতে আসেন। দু’জনে নেশা করেন। সে দিন যৌন সঙ্গমের সময় ঘরে থাকা শশা ব্যবহার করেছিলেন ডায়েটমন। সেই শশা জোরজবরদস্তি ঢুকিয়ে দেন রিকার মুখের ভিতরেও। শ্বাসরোধ হয়ে মারা যান রিকা।

পরে পুলিশের কাছে ডায়েটমন জানান, সেই সময় কিছু পোড়া গন্ধ পাওয়ায় রিকাকে ওই অবস্থাতে রেখে তিনি রান্নাঘরে যান। সেখান থেকে তিনি বারান্দায় দাঁড়িয়ে ধূমপান করেন। কিছু পরে ঘরে ফিরে আসেন। কিন্তু তখন অনেকটাই দেরি হয়ে গিয়েছিল। রিকা অচৈতন্য অবস্থায় বিছানাতেই পড়েছিলেন। তিনি মুখ থেকে শশা বের করার চেষ্টাও করেন। তাতে কোনও লাভ হয়নি। চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গেলেও তাঁকে বাঁচানো যায়নি।

ডায়েটমন জানান, তাঁরা এর আগেও সেক্সের সময় বাড়িতে থাকা সবজি ব্যবহার করেছেন। তাই কোনওরকম খারাপ পরিণতির কথা তিনি আঁচ করতে পারেননি। সুত্র-আনন্দবাজার