মেইন ম্যেনু

শারীরিক সম্পর্ক ছাড়াই ব্রিটেনে মা হচ্ছেন কমবয়সী নারীরা

ব্যাপারটা তাক লাগানোর মতোই! আপনি কুমারীই থেকে যাচ্ছেন। অর্থাৎ কখনই শারীরিক সম্পর্ক না করেও আপনি মা হতে পারছেন, সন্তান জন্ম দিচ্ছেন। আর এতে খরচ করতে হচ্ছে মাত্র ৫ হাজার ডলার।

সংবাদ মাধ্যম মিরর জানিয়েছে, শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন না করেই মা হচ্ছেন ব্রিটেনের অনেক নারীই। আর এ সুবিধাটি তাদের করে দিচ্ছে ইন ভিট্রো ফার্টালাইজেশন (আইভিএফ) ট্রিটমেন্ট পদ্ধতি। দেশটিতে অনেক হাসপাতালেই এখন এই সেবা দেয়া হচ্ছে। ব্রিটেনে ক্রমেই জনপ্রিয় হচ্ছে এ পদ্ধতি। সম্প্রতি কমপক্ষে ২৫ জন নারী সম্প্রতি আইভিএফ ট্রিটমেন্টের মাধ্যমে মা হয়েছেন।

এ পদ্ধতিতে সন্তানধারণকারী অধিকাংশ নারীই সাধারণ চাকরিজীবী কিংবা ছাত্রী। এদের মধ্যে অনেকেই বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকেন। এছাড়া অধিকাংশর বয়সই বিশের কোঠায়। এদের বেশির ভাগই নিজেদের ক্যারিয়ারের প্রতি অনেক সচেতন।

এদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল তারা কেন এই ট্রিটমেন্ট করছেন। অর্থাৎ তারা স্বাভাবিক নিয়মের বাইরে গিয়ে কেন মা হতে চাচ্ছেন।এই প্রশ্নের উত্তরে বেশিরভাগই নারীই জানিয়েছেন, তারা সন্তান নিতে প্রস্তুত। তবে তারা সঠিক জীবন সঙ্গীর জন্য অপেক্ষা করতে চান না।

আইভিএফ পদ্ধতিতে সেবাদানকারী চারটি ব্রিটিশ ফার্ম জানিয়েছে, যেসব তরুণীরা শারীরিক সম্পর্কে অনাগ্রহী তারা এ পদ্ধতির সাহায্যে সন্তান ধারণ করতে পারবেন এবং মা হতে পারবেন।

তবে পরিবার সম্পর্কে প্রচারণাকারী কিছু মানুষ এই পদ্ধতিতে সন্তান ধারণ করাকে টেডি বিয়ারের সাথে তুলনা করেছেন। অর্থাৎ বাইরে থেকে একটা কিছু নিজের ভেতরে ধারণ করার পক্ষপাতী নন তারা।

তবে জেমস নিউকাম নামে এক যাজক জানিয়েছেন, একজন শিশুর বাবা এবং মা থাকবে। তাদের মধ্যে বৈবাহিক সম্পর্ক থাকবে। আর সব ধরনের পারিপার্শ্বিকতা এটাই প্রমান করে যে এটা সন্তানদের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত পন্থা। তার মতে আইভিএফ বা এধরনের পদ্ধতি সমাজ ব্যবস্থাকে জটিল করে ফেলবে। তাই এটা কোন ভাল সমাধান হতে পারে না।

সুত্র: মিরর



« (পূর্বের সংবাদ)