মেইন ম্যেনু

শাহরুখ খানকে শীর্ষ জঙ্গির সঙ্গে তুলনা করলেন বিজেপি নেতা

বলিউড সুপার স্টার শাহরুখ খানকে পাকিস্তানি শীর্ষ জঙ্গি নেতা হাফিজ সাঈদের সঙ্গে তুলনা করেছেন বিজেপির সংসদ সদস্য যোগী আদিত্যনাথ। বুধবার তিনি বলেন, ‘শাহরুখ খান ও হাফিজ সাঈদের ভাষার (বক্তব্য) মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই।’

ভারতে অসহিষ্ণুতার বিষয়ে শাহরুখের মন্তব্যের সমালোচনা করে এ কথা বলেন যোগী আদিত্যনাথ।

তবে শাহরুখকে আক্রমণ করে নিজেই সমালোচনার মুখে পড়েছেন ওই বিজেপি নেতা। বিজেপির আরেক শীর্ষ নেতা নলিন কোহলি বলেছেন, ‘আপনি শাহরুখ বা ভারতের কোনো নাগরিককেই জঙ্গির সঙ্গে তুলনা করতে পারেন না। এটা বিজেপির দৃষ্টিভঙ্গি নয়।

এমনকি কট্টর হিন্দুত্ববাদী রাজনৈতিক দল শিব সেনা বলেছে, শুধু মুসলিম হওয়ার কারণে শাহরুখ খানকে টার্গেট করা ঠিক নয়।

গত সোমবার এনডিটিভির সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে শাহরুখ খান বলেন, ‘ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা বা যেকোনো ধরনের অসহিষ্ণুতাই খুব খারাপ বিষয়। এটা আমাদের অন্ধকার যুগে ফিরিয়ে নিয়ে যাবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি এ দেশে থাকব কি না, এ কথা বলার কোনো অধিকার আপনার নেই। আমি সবসময় বলি, এটা সেই দেশ (ভারত) যার জন্য আমার বাবা লড়াই করেছে। সুতরাং দয়া করে চুপ থাকুন।’

ভারতে সাম্প্রতিক ধর্মীয় অসহিষ্ণুতার বিষয়ে এমন মন্তব্য করার পর শাহরুখের সমালোচনা শুরু করেন বিজিপির কিছু নেতা-কর্মী।

মঙ্গলবার বিজেপি অন্যতম শীর্ষ নেতা ও মধ্যপ্রদেশ বিধানসভার সদস্য কৈলাশ বিজয়বারগিয়া শাহরুখকে আক্রমণ করে টুইটারে লেখেন,‘শাহরুখ ভারতে বাস করে, তবে তার মন পড়ে আছে পাকিস্তানে। তার ফিল্ম এখানে কোটি কোটি রুপি আয় করে, অথচ তিনি বলছেন, এ দেশ অসহিষ্ণু।’

শাহরুখকে নিয়ে এমন আক্রমণাত্মক মন্তব্যের পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন কৈলাশ। এমনকি তার দলের নেতা-কর্মীরাও তার নিন্দা করেন।

এসব সমালোচনার মুখে বাধ্য হয়ে টুইট প্রত্যাহার করেন কৈলাশ বিজয়বারগিয়া। পরে তিনি রি-টুইট করেন, ‘আমি কাউকে আঘাত করতে চাইনি। আমি টুইট প্রত্যাহার করছি।’

টুইটারে তিনি আরো লেখেন, ‘ভারত যদি অসহিষ্ণু হতো, তাহলে অমিতাভ বচ্চনের পর সবচেয়ে জনপ্রিয় অভিনেতা হতে পারতেন না শাহরুখ। কেউ কেউ আমার বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করেছে।’

কৈলাশ বিজয়বারগিয়ার টুইট প্রত্যাহারের পর শাহরুখকে নিয়ে আবারও বিতর্কিত মন্তব্য করেন বিজেপি নেতা যোগী আদিত্যনাথ।

উল্লেখ্য, হাফিজ সাঈদ পাকিস্তান ভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জামাত-উদ-দাওয়ার প্রধান। ২০০৮ সালে মুম্বাই বোমা হামলার অন্যতম হোতা এই জঙ্গি নেতা।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এনডিটিভি।