মেইন ম্যেনু

শিকাগোতে সেরা ছবি মাটির প্রজার দেশে

হিন্দি, সিংহলিজ, মালায়ালাম, উর্দু, পাঞ্জাবী, ইংলিশসহ বিভিন্ন ভাষায় নির্মিত ১৪টি ছবির সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে শিকাগোর সিয়াটল উৎসবে সেরা ছবির সম্মাননা পেল বাংলাদেশর ছবি ‘মাটির প্রজার দেশে’।

ছবিটি পরিচালনা করেছেন তরুণ নির্মাতা ইমতিয়াজ বিজন। গেল ৯ অক্টোবর স্থানীয় সময় রাত ১০টায় নির্মাতা বিজনের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন উৎসব কর্তৃপক্ষ।

পরিচালক বিজন বলেন, ‘এই অর্জন পুরো বাংলাদেশের। নির্মাতা হিসেবে এই প্রাপ্তিতে আমি ভীষণ আনন্দিত। আসছে জানুয়ারিতে ঢাকায় অনুষ্ঠেয় ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে এ ছবিটি প্রথমবারের মত বাংলাদেশের দর্শকরা দেখতে পাবেন বলে আশা করছি। পরবর্তীতে সিনেমা হলেও মুক্তি দেয়া হবে ‘মাটির প্রজার দেশে’।’

১০ অক্টোবর সমাপনী অনুষ্ঠানেরর মাধ্যমে উৎসব সমাপ্তি হয়। সিয়াটল আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ারের পর এবার শিকাগো সাউথ এশিয়ান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রতিযোগীতা বিভাগে লড়াই করল ইমতিয়াজ আহমেদ বিজন পরিচালিত বাংলাদেশের একমাত্র ছবি ‘মাটির প্রজার দেশে’।

আন্তর্জাতিক এই চলচ্চিত্র উৎসবে ইন্ডিয়া, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, যুক্তরাষ্ট্রের গুণী পরিচালকদের সারিতে দাঁড়িয়ে সেই লড়াইয়ে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন বিজন।

যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো শহরে ৫ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া এই উৎসব শেষ হয়ছে ১০ অক্টোবর। এটি শিকাগো সাউথ এশিয়ান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সপ্তম আসর। এই চলচ্চিত্র উৎসব দক্ষিণ এশিয়ার চলচিত্র নির্মাতাদের জন্য অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি প্লাটফর্ম হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। জি সিনেমা পরিবেশিত এবারের উৎসবে মোট ১৫ টি ছবি প্রতিযোগীতা বিভাগে লড়েছে। ছবিগুলো হল ‘মাসান’, ‘আলিগর’, ‘আইল্যান্ড সিটি’, ‘দি টাইগার হান্টার’, ‘কাশ’, ‘ওয়েটিং’, ‘বুদ্ধিয়া সিং : বর্ণ টু রান’, ‘মাটির প্রজার দেশে’ ইত্যাদি।

গুপী বাঘা প্রোডাকশন্স প্রযোজিত বিজনের প্রথম ছবি ‘মাটির প্রজার দেশে’। নিজস্ব অর্থায়নে নির্মিত ছবিটি শেষ করতে সময় লেগেছিল পাঁচ বছর। একটি শিশুকে ঘিরে ‘মানিব্যাগ’ শিরোনামের নতুন আরেকটি ছবির পাণ্ডুলিপির কাজ করছেন।