মেইন ম্যেনু

শিক্ষকতায় ফিরে যাচ্ছেন ভূমিপুত্র আতিউর

দ্য পদত্যাগী গভর্নর ড. আতিউর রহমান আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, অযথা কোনো বিতর্ক যেনো না হয় সেজন্য নৈতিক দায়িত্ববোধ থেকেই তিনি পদত্যাগ করেছেন।

তার মতো একজন ভূমিপুত্রের বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হতে পারার মতো ঘটনার জন্য তিনি বাংলাদেশের জনকের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আবারো শিক্ষকতা এবং গবেষণায় ফিরে যাওয়ার কথাও জানিয়েছেন।

দেশ-বিদেশের যারা রিজার্ভ চুরির ঘটনায় জড়িত, তদন্ত করে তাদেরকে খুঁজে বের করে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছেন বিদায়ী গভর্নর। সংকটকে ভবিষ্যতের সম্ভাবনায় রূপান্তরের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেছেন: এটা ছিলো হাইটেক সাইবার অ্যাটাক, অনেকটা টেরোরিস্ট অ্যাটাকের মতো ঘটনা। সব মিলে আমাদের বুঝতে কিছুটা সময় লেগেছে। একটা অস্পষ্টতাও ছিলো।

রিজার্ভ চুরির পরের সময়ের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, রিজার্ভের যে অর্থ রয়েছে তা আগে নিরাপদ করা হয়েছে, এরপর যে অর্থ বের হয়ে গেছে তা ফেরৎ আনার চেষ্টা করেছি।

‘বাংলাদেশ ব্যাংককে সন্তানের মতো দেখেছি, তিলে তিলে খনির মতো ২৮ বিলিয়ন ডলার জমা করেছি, আমার অবহেলায় এটা হারিয়ে যাবে এটা মানতে আমার কষ্ট হচ্ছে,’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, সাত বছর আগে তিনি যখন দায়িত্ব নেন তখন বাংলাদেশের রিজার্ভ ছিলো সাড়ে ছয় বিলিয়ন ডলার যা এখন ২৮ বিলিয়ন ডলারের বেশি।

বাংলাদেশের ব্যাংকিং সেক্টর নিয়ে ড. আতিউর রহমান বলেন, ব্যাংকিং সেক্টরকে স্থিতিশীল অবস্থায় আনা হয়েছে, এর ধারাবাহিকতায় উত্তরসূরীরা পুরো ব্যাংকিং খাতকে নিরাপদ করবে বলে প্রত্যাশা করছি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের উদ্যোগে অন্তর্ভূক্তিমূলক ব্যাংকিং এর যেসব পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে তা চালু রাখার আহ্বান জানিয়ে সবাইকে সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

গুলশানের বাসভবনে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে আবারো শিক্ষকতায় ফিরে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন ড. আতিউর রহমান।