মেইন ম্যেনু

জ্বালানি তেলের দাম কমানোর ইঙ্গিত

শিক্ষকরা না বুঝেই আন্দোলন করছেন

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আন্দোলন নিয়ে ফের প্রশ্ন তুলেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তিনি বলেছেন, শিক্ষকরা না বুঝেই আন্দোলন করছেন। যে দাবি নিয়ে তারা আন্দোলন করছেন সেটা তাদের যৌক্তিক দাবি নয়। শিক্ষকরা যে সমস্যার কথা বলছেন তা অলরেডি সমাধান করা হয়ে গেছে।

রবিবার অর্থমন্ত্রণালয়ে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স এণ্ড ইন্ডাস্ট্রির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

অষ্টম জাতীয় পে স্কেলে সিলেকশন গ্রেড বহাল ও গ্রেড সমস্যার সমাধান না হলে ১১ জানুয়ারি থেকে দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতিতে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে- এ বিষয়ে জানতে টাওয়া হলে অর্থমন্ত্রী বলেন, দেখা যাক তারা আন্দোলন করে কতদূর যেতে পারে।

অষ্টম জাতীয় পে স্কেলে সিলেকশন গ্রেড বহাল ও গ্রেড সমস্যার সমাধান না হলে ১১ জানুয়ারি থেকে দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতিতে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন। ওই সময় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পরীক্ষা হবে না, সেই সাথে চলবে না সান্ধ্যকালীন কোর্স।

অষ্টম জাতীয় বেতন স্কেলে শিক্ষকদের গ্রেড সমস্যা নিরসনের দাবিতে কয়েক মাস ধরেই আন্দোলন করছে বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে টানা ৬ষ্ঠ দিনের মতো কর্মবিরতিতে পালন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। পরবর্তী কর্মসূচি ঠিক করতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মোজাফ্ফর আহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে বৈঠক করে বাংলাদেশ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন।

জ্বালানি তেলের দাম কমানোর ইঙ্গিত দিলেন মন্ত্রী

জ্বালানি তেলের দাম কমানোর ইঙ্গিত দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেছেন, ‘তেলের দাম কমানো হতে পারে। মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

রোববার দুপুরে সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

মুহিত বলেছেন, ‘জ্বালানি তেলে যে লোকসান (ক্ষতি) হয়েছে, তা সমন্বয় করেছে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি)। এখন দাম কমানোর বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে।’

উল্লেখ্য, গত কয়েক মাসে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বলানি তেলের দাম কমছেই। কমতে কমতে সেই দাম ৩৮ ডলারে নেমে এসেছে।

সেই পরিপ্রেক্ষেতে দেশে গ্রাহক পর্যায়ে দাম কমানোর কথা উঠলে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়- বিপিসি আগে অনেক লোকসান দিয়েছে। তা সমন্বয় হোক।