মেইন ম্যেনু

শিক্ষামন্ত্রীসহ ১৯ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে হত্যার হুমকি

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, সমাজকল্যাণমন্ত্রী মহসিন আলী এবং বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক জাফর ইকবালসহ ১৯ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে।

বুধবার দুপুর সোয়া ২টার দিকে অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের অফিসে ডাকযোগে ২০ জনের নামের তালিকা-সংবলিত একটি চিঠি পাঠিয়ে ইত্তেহাদুল মুজাহিদীন নামের এক সংগঠন এ হুমকি দেয়। তবে ওই তালিকার প্রথমে থাকা নীলাদ্রি চট্টোপাধ্যায় নামটি লাল কালি দিয়ে কাটা। তাকে ৭ আগস্ট রাজধানীতে ভাড়া বাসায় কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

অনলাইন পত্রিকাটির অপরাধবিষয়ক প্রতিবেদক গোলাম মুজতবা ধ্রুব এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ডাক বিভাগের মাধ্যমে একটি চিঠির খাম অফিসে আসে। সেটি খুলে দেখা যায় ২০ জনের নামের একটি তালিকা। নিচে লেখা রয়েছে, ‘ মরণ একদিন হবেই বন্ধু, আজ নয়তো কাল…।’

ওই খামে সংগঠনটির পরিচয় বা ঠিকানা দেওয়া হয়নি। খামের ওপর সিলেট পোস্ট অফিসের সিল ও ১০ আগস্টের তারিখ লেখা রয়েছে।

এরপর ধারাবাহিকভাবে ব্লগার আরিফ জেবতিক, সুশান্ত দাশ গুপ্ত, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক জাফর ইকবাল, ভাস্কর ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী, আব্দুর রহমান, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর মকবুল হোসেন ও সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের নাম দেওয়া হয়েছে।

তালিকায় এরপর রয়েছে ব্লগার আরিফুর রহমান, অমি রহমান পিয়াল, হুমায়ুন আজাদের ছেলে অনন্য আজাদ, গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক মাহমুদুল হক মুন্সি, মারুফ রসুল, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক আরাফাত রহমান, ব্লগার নির্ঝর মজুমদার, ড. আতিক, আশফাক আনুপ ও নূর নবী দুলালের নাম।

এ ব্যাপারে ঢাকা মহানগর পুলিশর (ডিএমপি) মিডিয়া বিভাগের উপ-কমিশনার মুনতাসিরুল ইসলাম জানান, বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এর আগেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের হত্যার হুমকি দিয়ে দুই দফা চিঠি আসে। সেই বিষয়ে ধানমন্ডি থানায় জিডিও হয়েছিল। পুলিশ ওই জিডির তদন্তকাজ এখনো শেষ করতে পারেনি।

এরপর গত ৮ আগস্ট ছেলের মোবাইল ফোনে একাত্তরের বীরাঙ্গনা ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণীকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। ধানমন্ডি থানায় ওই রাতেই একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। ওই ডায়েরির পর ধানমন্ডি পুলিশের পক্ষ থেকে প্রিয়ভাষিণীকে পুলিশ পাহারায় নিরাপত্তা দেওয়া হচ্ছে ।