মেইন ম্যেনু

শিক্ষিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত

মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলায় শিক্ষিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলামকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। মুজিবনগর আম্রকানন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

সোমবার দুপুরে এলাকার শত শত নারী-পুরুষ অভিযুক্ত শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ঝাড়ু হাতে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে উপস্থিত হয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে। প্রতিবাদের মুখে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ এক জরুরি সভায় মিলিত হয়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করলে বিক্ষোভকারীরা বাড়ি ফিরে যায়।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মুজিবনগর উপজেলার আম্রকানন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন খ্রিষ্টান ধর্ম শিক্ষিকা নিবন্ধন পরীক্ষায় অংশ নিতে কুষ্টিয়া যান। সঙ্গে যান বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলাম। কুষ্টিয়া শহরের আল-আমিন হোটেলে পাশাপাশি দুইটি কক্ষে রাতযাপন করেন তারা।

পরদিন শুক্রবার ভোরে প্রধান শিক্ষক সাবজেক্ট দেয়ার নাম করে দরজা খুলতে বললে ওই শিক্ষিকা দরজা খুলে দেন। এসময় প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলাম জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করেন। এক পর্যায়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেললে ওষুধ কোম্পানির এক প্রতিনিধির সাহায্যে ওই নারীকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে পালিয়ে যান প্রধান শিক্ষক।

এরপর ভয়-ভীতি দেখানো হলে হাসপাতাল ছেড়ে পালিয়ে যান নির্যাতিতা নারী। শনিবার রাতে আবারো কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন ওই নারী। বর্তমানে শারীরিকভাবে সুস্থ হলেও মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন তিনি। সকল ভয়-ভীতি উপেক্ষা করে নির্যাতিতা নারী নিজেই বাদী হয়ে রোববার কুষ্টিয়া মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে প্রধান শিক্ষককে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেন।