মেইন ম্যেনু

শিশুকে নির্যাতনের অভিযোগে থানায় মামলা

রাজশাহী: জেলার পবায় স্কুল শিক্ষার্থীকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। শনিবার রাতে ১১ জনকে আসামি করে পবা থানায় মামলাটি দায়ের করেন নির্যাতনের শিকার জাহিদ হাসানের বাবা ইমরান।

পবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শরিফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মামলার আসামিরা হলেন- পবা উপজেলার চৌবাড়িয়া গ্রামের কটা মুন্নির ছেলে নাসির, সমশের মোহরীর ছেলে পলাশ, মুন্নার ছেলে তুহিন, সান্দি মণ্ডল ও তার ছেলে অনিক, বেরাজের ছেলে রাজ্জাক, আমদি মণ্ডলের ছেলে সাগর, বারির ছেলে আজিজুল, ফরিদের ছেলে কমল, যে বাড়িতে নির্যাতন করা হয়েছে সেই বাড়ির মালিক ফজলুল বারি ও তার ছেলে রাকিব।

আহত জাহিদ হাসান অভিযোগ করে জানান, থানায় মামলা করায় আসামি পক্ষের লোকজন নানানভাবে হুমকি দিয়ে আসছে।

পবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শরিফুল ইসলাম জানান, থানায় মামলা হওয়ার পর পুলিশ আসামিদের গ্রেপ্তার করতে অভিযানে নেমেছে। এ খবর পেয়ে আসামিরা বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে।

উল্লেখ্য, চুরির অপবাদ দিয়ে উপজেলার বাগসারা গ্রামের ইমরানের ছেলে জাহিদ হাসানকে অমানুষিক নির্যাতন করে আসামিরা। শুক্রবার বিকেল ৩টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত তারা জাহিদকে আটকে রেখে মারপিট করা হয়। উপজেলার চৌবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরদিন শনিবার নির্যাতনের এ ঘটনা ফাঁস হয়ে যায়। আহত ওই শিক্ষার্থীকে পবা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। তবে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে নির্যাতকরা। এ নিয়ে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে স্থানীয়দের মাঝে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন…