মেইন ম্যেনু

শিশু-কিশোরদের আরথ্রাইটিসের বিষয়ে জানুন

সাধারণত বয়স্ক মানুষদেরই আরথ্রাইটিসের সমস্যা হয়ে থাকে বলে আমরা জানি। কিন্তু অনেকেই এটা জানেন না যে শিশু এবং কিশোরদের ও আরথ্রাইটিস হতে পারে। তাই চলুন জেনে নিই শিশু-কিশোরদের আরথ্রাইটিসের রিস্ক ফ্যাক্টরগুলোর বিষয়ে।

১। স্পোর্টস ইনজুরি

বাড়ন্ত শিশুদের আরথ্রাইটিসের সমস্যা হওয়ার একটি সাধারণ কারণ হচ্ছে স্পোর্টস ইনজুরি। তাছাড়া খেলাধুলার কারণে আঘাত পেয়ে যেকোন বয়সের মানুষেরই অষ্টিওআরথ্রাইটিস হতে পারে। খেলাধুলার সময় যে আঘাতগুলোর ফলে অষ্টিওআরথ্রাইটিস হতে পারে সেগুলো হল – কার্টিলেজ বা তরুণাস্থি ছিড়ে যাওয়া, জয়েন্ট বা অস্থি সন্ধি স্থানচ্যুত হওয়া এবং লিগামেন্ট বা অস্থি বন্ধনীতএ আঘাত পাওয়া।

২। ইলেকট্রনিক গ্যাজেট

বর্তমান জেনারেশনের বেশিরভাগ শিশু-কিশোররাই মোবাইন ফোন, কম্পিউটার এবং গেম খেলার বিভিন্ন ডিভাইসে বেশিরভাগ সময় ব্যায় করে। এর ফলে তাদের বেশীর ভাগেরই কব্জি ও আঙ্গুলে অষ্টিওআরথ্রাইটিস হওয়ার প্রবণতা দেখা দেয় শুধু তাই নয় বরং বসার ভঙ্গির কারণে মেরুদন্ড ও কোমরের জয়েন্টেও সমস্যা দেখা দেয়।

৩। অটোইমিউন ডিজঅর্ডার

অটোইমিউন রোগের কারণে শিশু-কিশোরদের আরথ্রাইটিস হওয়ার ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়। এটি এমন একটি সমস্যা যার ফলে ইমিউন সিস্টেম আক্রান্ত হয়। ফলে জয়েন্টের সুস্থ কোষই ইনফেকশনে এবং ইনফ্লামেশনে আক্রান্ত হয়।

৪। স্থূলতা

যদিও আরথ্রাইটিসে যেকোন বয়সের, যেকোন লিঙ্গের এবং যেকোন আকারের মানুষই আক্রান্ত হতে পারে, তারপর ও মোটা মানুষদের আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি একটু বেশিই থাকে। অতিরিক্ত ওজন জয়েন্টের উপর চাপ ফেলে বিশেষ করে হাঁটু, কোমর ও মেরুদন্ডের উপর। এর ফলে তরুণাস্থিও ক্ষতিগ্রস্থ হয়, যা অষ্টিওআরথ্রাইটিসের মূল কারণ।

৫। ধূমপান

অনেক কিশোরদের মাঝেই ধূমপানের অভ্যাস গড়ে উঠে পরিবারের অজান্তেই। ধূমপানের কারণেও আরথ্রাইটিসের ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়। বিশেষ করে যদি জিনগত প্রবণতা থাকে। ধূমপানের কারণে এই রোগের তীব্রতা বৃদ্ধি পেতে পারে।