মেইন ম্যেনু

শিয়া মসজিদে হামলা: আইএসের দায় স্বীকার

জেলার শিবগঞ্জ উপজেলায় শিয়া মসজিদে হামলার ঘটনার দায়ও ‘স্বীকার’করেছে মধ্যাপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠনের ইন্টারনেটভিত্তিক তৎপরতা নজরদারির যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ’ এমনটাই বলছে। ওয়েবসাইটটি বৃহস্পতিবার আইএসের এই দাবির কথা জানায়।

শিবগঞ্জ উপজেলার চককানু গ্রামে গতকাল সন্ধ্যায় বন্দুকধারীরা শিয়া সম্প্রদায়ের ওই মসজিদে এশার নামাজের প্রস্তুতিকালে মুসল্লিদের ওপর হামলা করে। তাদের এলোপাতাড়ি গুলিতে ওই মসজিদের মুয়াজ্জিন মোয়াজ্জেম হোসেন নিহত এবং ইমামসহ তিনজন গুরুতর জখম হন।

গুলিবিদ্ধ চারজনকেই প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসকেরা মোয়াজ্জেম হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, অন্তত ১৫ থেকে ১৬ জন মুসল্লি ওই গ্রামের মসজিদে মাগরিবের নামাজ আদায় শেষে এশার নামাজের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। ওই সময় তিন-চারজন যুবক মসজিদটিতে ঢুকে প্রধান ফটকটি বন্ধ করে দেয়। এরপর মুসল্লিদের ওপর এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায়। এতে ইমাম শাহিনুর রহমান, মুয়াজ্জিন মোয়াজ্জেম হোসেন, মুসল্লি আবু তাহের ও আফতাব উদ্দিন গুলিবিদ্ধ হন।

এর আগে দুই বিদেশি নাগরিক হত্যা এবং পুরান ঢাকায় হোসনি দালানে হামলাসহ কয়েকটি ঘটনার দায়ও আইএস স্বীকার করে বলে ‘সাইট’জানায়।

অবশ্য দেশে আইএসের অস্তিত্ব নেই বলে দাবি করে আসছে সরকার।