মেইন ম্যেনু

শুক্রাণূর মান নষ্ট করে মোবাইল ফোন

পুরুষদের সতর্ক করে দিলেন বিজ্ঞানীরা। পুরুষদের শুক্রাণুর গুণগত মান মোবাইল ব্যবহারের কারণে আশঙ্কাজনক হারে কমে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন উর্বরতা বিষয়ক ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞরা।

নতুন এক গবেষণায় এ তথ্য তুলে ধরেন হাইফার টেকনিয়ন ইউনিভার্সিটির প্রফেসর মার্থা ডার্নফেল্ড। বলা হয়, প্যান্টের পকেটে পুরুষাঙ্গের কাছাকাছি মোবাইল ফোন থাকলে তা অণ্ডকোষের ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে। এমনকি দেহ থেকে এক-দুই ফুট দূরত্বের মধ্যে মোবাইল থাকলে তা শুক্রাণুর গুণগত মানের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে।

গবেষণায় বলা হয়, প্রায় পুরুষই প্যান্টের সামনের পকেটে মোবাইল ফোন রাখেন। এদের ৪৭ শতাংশই মোবাইলের বিরূপ প্রভাবের শিকার। মার্থা জানান, পুরুষের দেহে সক্রিয় শুক্রাণুর সংখ্যা বের করা হয়েছে। মোবাইলের কারণে এ সংখ্যার যথেষ্ট হ্রাস ঘটে বলে প্রমাণ মিলেছে। মোবাইলের ইলেকট্রোম্যাগনেটিক ক্রিয়ার জন্যে অণ্ডকোষ উত্তপ্ত হয়ে পড়ে। আর এ কারণেই শুক্রাণু ক্ষতিগ্রস্ত হয়। গবেষণায় প্রতিবছর ফার্টিলিটি ক্লিনিকে আসা শতাধিক পুরুষকে পর্যবেক্ষণ করা হয় এ গবেষণায়।

পকেটে না থাকলেও বিছানায় শোয়া অবস্থায় দেহের পাশেই মোবাইল রেখে চার্জ দেওয়া হয়। মোবাইল আশপাশে থাকলেও শুক্রাণুর সংখ্যা কমে যাওয়ার প্রমাণ মিলেছে এ গবেষণায়। রিপ্রোডাক্টিভ বায়োমেডিসিন জার্নালে গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে। তাই যে সকল পুরুষ মোবাইল ফোন ব্যবহার করছেন তাদের সাবধান হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।



« (পূর্বের সংবাদ)