মেইন ম্যেনু

শেষ পর্যন্ত পোড়া বস্তি উচ্ছেদ বন্ধ ঘোষণা

হাইকোর্টের নির্দেশে রাজধানীর দক্ষিণ পাইকপাড়ার পোড়া বস্তি উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এর আগে সকাল থেকে বুলডোজার দিয়ে ওই বস্তির ঘরবাড়ি ভাঙতে শুরু করে গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। তবে কর্মকর্তারা কোনো কথা না বলেই সেখান থেকে যন্ত্রপাতি নিয়ে চলে যান।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আসলাম নামে এক প্রত্যক্ষদর্শী এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এ ছাড়া মিরপুর থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) মাসুদ পারভেজও বস্তি উচ্ছেদ বন্ধের কথা নিশ্চিত করেন।

মাসুদ পারভেজ জানান, বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের দেওয়া আদেশের কপি ঘটনাস্থলে পৌঁছার সঙ্গে সঙ্গে গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ বস্তি উচ্ছেদ বন্ধ ঘোষণা করে। তারা সেখান থেকে মালামাল নিয়ে চলে যান। পুলিশ সদস্যরাও সেখান থেকে চলে যান।

এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ ওই বস্তি উচ্ছেদ ও সেখানকার লোকদের হয়রানি না করতে আগামী তিন মাসের জন্য নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। এরপরও গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ বস্তি উচ্ছেদ কার্যক্রম চালিয়ে যায়।

বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ম্যাজিষ্ট্রেট নুর আলম জানিয়েছিলেন, এখানে ৫০ একর জমির মধ্যে ১৫ একর জমির ওপর হাইকোর্টের ‘স্টে অর্ডার’ ছিল। বাকি জমির অবৈধ দখলদারদের বারবার নোটিশ করা হয়েছে। এরপরও তারা সরে যাননি। ফলে সমস্ত আইনি প্রক্রিয়া শেষ করেই অভিযান চালানো হচ্ছে।

বস্তিতে অভিযান চালানোর সময় বস্তিবাসী ও পুলিশের মধ্যে ব্যাপক ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। এ সময় পুলিশ টিয়ারসেল, রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। অন্যদিকে বস্তিবাসী টায়ার ও গাছের গুড়িতে আগুন ধরিয়ে বস্তি উচ্ছেদে বাধার সৃষ্টি করে। মাঝেমধ্যে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেলও নিক্ষেপ করে। পরে তারা বিপুল সংখ্যক পুলিশের উপস্থিতি দেখে বস্তি থেকে কিছু মালামাল নিয়ে খালি জায়গায় আশ্রয় নেয়।