মেইন ম্যেনু

শেষ পর্যন্ত বিচ্ছেদের পথেই হাঁটছেন মালাইকা

গুজব চলছে কয়েক মাস ধরেই। তবে এবার বোধ হয় গুজব বাস্তবে রূপ নিতে যাচ্ছে। কারণ কারো কোনো কথাই আর শুনতে রাজি নন মালাইকা অরোরা খান। বিচ্ছেদের পথেই হাঁটবেন তিনি।

খুব শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে বিচ্ছেদের আবেদন করতে যাচ্ছেন মালাইকা। এমন খবরই জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া, ইন্ডিয়া টুডে, এবিপি লাইভ ও জি নিউজ।

বেশ কয়েক মাস ধরেই গণমাধ্যমে একসাথে পাওয়া যাচ্ছিল না আরবাজ ও মালাইকাকে। তবে বিচ্ছেদের ব্যাপারেও কেউ মুখ খোলেননি এত দিন।

১৪ বছরের ছেলে আরহানকে নিয়ে আলাদাই থাকছেন এখন মালাইকা। তিন মাস আগে আরবাজদের বান্দ্রার বাড়ি ছেড়ে ছেলেকে নিয়ে খারের একটি অ্যাপার্টমেন্টে উঠেন তিনি। এরপর থেকে আরবাজদের পারিবারিক কোনো অনুষ্ঠানেও দেখা যায়নি মালাইকাকে।

‘পাওয়ার কাপল’ নামে একটি টিভি অনুষ্ঠানে তাঁরা একসঙ্গে উপস্থাপনা করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন। কিন্তু তিনটি পর্বের শুটিং হওয়ার পর তাঁরা আর কোনো কাজ করেননি। পরে অবশ্য আলাদা আলাদাভাবে এসে কাজ করেছেন তাঁরা। এমনকি দুজনের জন্য আলাদা গ্রিন রুমের ব্যবস্থাও করা হয়েছিল অনুষ্ঠানের শুটিংয়ের সময়।

এর মধ্যে আরবাজের ভাই সালমান খান চেষ্টা করেছিলেন ভাইয়ের সংসার বাঁচাতে। মালাইকাকে বুঝিয়ে সুঝিয়ে মানানোর দায়িত্ব ছিল তাঁর। কিন্তু চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছেন সালমান।

আর তাই ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে, আরবাজ-মালাইকার ১৮ বছরের সংসার বাঁচানোর আর কোনো উপায় নেই। এখন শুধু সেটা আদালত পর্যন্ত যাওয়ার অপেক্ষা।

১৯৯৮ সালের ডিসেম্বরে বিয়ে করেছিলেন আরবাজ খান ও মালাইকা অরোরা।