মেইন ম্যেনু

শেষ পর্যন্ত মাহির সংসার টিকবে কি?

ঘটা করে না হলেও বিয়ের খবরটা জানোর জন্য সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিলেন আয়োজন করেই। এরপর বর সম্পর্কে সব কিছুই জানানো হয় সংবাদ মাধ্যমকে। এরমধ্য দিয়ে মাহির ভক্ত অনুরাগিসহ পুরো দেশের মানুষই জেনেছিলেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা মাহিয়া মাহির বিয়ের খবরটি।

এ পর্যন্ত সব কিছুই ঠিকঠাক ছিল। কিন্তু কে জানতো মাহির এই সুখের ঘরে কালো মেঘের ঘনঘটা এমনভাবে হানা দিবে! অনেকটা দুঃস্বপ্নের মতই মাহির সুখের ঘরে অসুখ যেন ঢুকে পড়েছে। যার ফলে এখন অনেকটাই বিব্রত আর বিরক্ত মাহি।

এদিকে বিয়ের পরপরই মাহিকে স্ত্রী হিসাবে দাবি করেন তারই বন্ধু শাহরিয়ার শাওন। শুধু তাই নয়, মাহির সঙ্গে শাহরিয়ার শাওনের বেশ কিছু অন্তরঙ্গ ছবিও শাওন ফেসবুকে ছেড়ে দেয়। এসব ছবি ছড়িয়ে পরার পর পারভেজ অনেকটা আড়ালে চলে গেছেন। তার মন-মেজাজও নাকি খারাপ। মাহির সঙ্গে শাহরিয়ার শাওনের বিয়ের দাবির বিষয়টি পারভেজ মেনে নিতে পারছে না।

এদিকে শাওনের ঘটনাটি সাজানো বলে দাবী করেছিলেন মাহি। এর প্রতিকার চেয়ে আইসিসিটি আইনে উত্তরার পশ্চিম থানায় মামলাও করেন। মামলার পর গোয়েন্দা পুলিশ শাওনকে আটকও করে দু’দিনের রিমান্ডে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদও করেন। কিন্তু পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের মধ্য দিয়ে শুরু হয় নতুন আরও নাটকের। শাওন দাবী করছেন, মাহি তার স্ত্রী। তাদের বিয়ে হয়েছে বাড্ডার একটি কাজী অফিসে। এমনকি বিয়ের স্বপক্ষে কাগজপত্রও দেয়া হয় পুলিশের কাছে।

এদিকে রিমান্ড শেষে মঙ্গলবার শাওনকে ঢাকার মহানগর হাকিম মাজহারুল ইসলামের আদালতে হাজির করে দ্বিতীয় দফায় রিমান্ড আবেদন করে ডিবি পুলিশ। অন্যদিকে শাওনের জামিন চেয়ে আবেদন করেন তার আইনজীবী। শুনানি শেষে বিচারক রিমান্ড ও জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে শাওনকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এদিকে মাহি ও শাওনের বিয়ের কাবিননামা আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে। কাবিননামা আদালতে দাখিলের বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন শাওনের আইনজীবী বিল্লাল হোসেন। তিনি জানিয়েছেন, একবছর আগে শাওনের সঙ্গে বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হন মাহি। গত বছরের ১৫ মে চার লাখ টাকা দেনমোহরে মাহিকে বিয়ে করেন শাওন। ফলে প্রশ্ন উঠেছে, এই কাবিনামাটি কি সত্যিই? আর যদি সত্যিই হয় তবে কি করবেন মাহির স্বামী অপু?

আদালতে শাওনের কাবিননামা উপস্থাপনের পর মাহির কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এছাড়াও মাহির স্বামী অপুরও কোন প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি এ নিয়ে। তবে একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল জানিয়েছে, পারভেজ বর্তমানে গণমাধ্যমকে এড়িয়ে চলছেন। মহিকে স্ত্রী হিসাবে শাওনের দাবি করা, শাওনের বিরুদ্ধে মাহির মামলা দায়ের, শাওন-মাহির আপত্তিকর ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পাড়ার পর থেকেই সে নাকি তার বন্ধুদেরও এড়িয়ে চলছেন।

এদিকে মাহির বিয়ের আগে জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আব্দুল আজিজের সঙ্গে তার প্রেম ছিল। যদি মাহি সেটা অস্বীকার করে গেছেন। কিন্তু আজিজ তা ফলাও করে প্রচার করেছেন। তার ভাষ্য ছিল, মাহি তার সঙ্গে নাকি দীর্ঘদিন প্রেম করেছেন। আর সেই পুরনো প্রেম ভুলতেই তড়িঘড়ি করে পারভেজকে তিনি বিয়ে করেছেন বলেও গুঞ্জন রয়েছে মিডিয়াপাড়াতে।

এদিকে তারকাদের বিয়ের পর পুরনো কাহিনী ফাঁস হওয়ার ঘটনা নতুন নয়। এর আগেও পুরনো ঘটনা ফাঁস হওয়ায় মিডিয়াতে অনেক তারকা দম্পত্তির ঘর ভেঙ্গেছে। এই দলে আলোচনা-সমালোচনার শীর্ষে আছেন প্রভা ও অপূর্ব। তাদের বিয়ের কিছুদিন পর প্রভার সঙ্গে রাজীবের গোপন ভিডিও ফাঁস হওয়ার পর ঘর ভাঙ্গে তাদের। এখন মাহি-পারভেজ জুটির মধ্যে শাওনের এই হানা কি শেষ পর্যন্ত সেই পরিনতিই ঢেকে আনবে?



(পরের সংবাদ) »