মেইন ম্যেনু

শোকের মধ্যেও হাসিনা-মোদি বৈঠক

ভারতের প্রেসিডেন্ট প্রণব মুখার্জির স্ত্রী শুভ্রা মুখার্জির শেষকৃত্যে যোগদান শেষে, শোকের মধ্যেও দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৈঠকে সীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়নের প্রক্রিয়া নিয়ে দুই প্রধানমন্ত্রী সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি বাংলা।

সংবাদমাধ্যমটির প্রতিবেদনে বলা হয়, দিল্লির লোধি রোডের শ্বশানে শেষকৃত্যের পর প্রধানমন্ত্রীর রেসকোর্স রোডের বাসভবনে অনুষ্ঠিত আধ ঘণ্টার ঐ বৈঠককে কর্মকর্তারা সৌজন্য সাক্ষাৎ বলে উল্লেখ করেছেন। প্রতিবেদনে বলা হয়, বৈঠকে দুর্যোগ মোকাবিলায় দক্ষিণ এশিয়ায় একটি যৌথ মহড়ার প্রস্তাব দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। এছাড়া, প্রস্তাবিত ভারত-বাংলাদেশ-নেপাল-ভুটান বাণিজ্য করিডোর দ্রুত বাস্তবায়ন নিয়ে কথা বলেন দুই সরকার প্রধান।

ভারতীয় কর্মকর্তাদের বরাতে বিবিসি বাংলা জানায়, তিস্তার পানিবন্টন নিয়ে প্রস্তাবিত চুক্তির ব্যাপারে বৈঠকে কোন কথা হয়নি।

প্রধানমন্ত্রী হাসিনার সাথে ছিলেন তার বোন শেখ রেহানা, মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী।

বাংলাদেশের নড়াইলে জন্ম হওয়া শুভ্রা মুখার্জি ৭৪ বছর বয়সে মঙ্গলবার দিল্লির এক হাসপাতালে মারা যান। বেশ কিছুদিন ধরে তিনি শ্বাস প্রশ্বাসের সমস্যায় ভুগছিলেন। মৃত্যুর খবর শোনার পরপরই দিল্লি যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন শেখ হাসিনা।

বিবিসি বাংলা জানায়, প্রণব মুখার্জির সঙ্গে শেখ হাসিনার পারিবারিক পর্যায়ে ঘনিষ্ঠতা রয়েছে। ১৯৭৫ সালের পর শেখ হাসিনা যখন বছর কয়েক দিল্লিতে ছিলেন, প্রণব মুখার্জি কার্যত তার স্থানীয় অভিভাবকের ভূমিকা পালন করতেন।



« (পূর্বের সংবাদ)