মেইন ম্যেনু

শোক দিবসে ফুল দেওয়া নিয়ে সংঘর্ষে যুবলীগকর্মী নিহত

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দেওয়া নিয়ে কুষ্টিয়ায় আওয়ামী লীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের মধ্যে সংঘর্ষে এক যুবলীগকর্মী নিহত হয়েছেন। শনিবার সকালে মজমপুর গেটে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করার সময় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, নিহত যুবলীগকর্মীর নাম হল সবুজ (২২)। তিনি প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ সময় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আরও পাঁচ কর্মী আহত হয়েছেন।

আহতদের মধ্যে যুবলীগকর্মী বিদ্যুৎ, আজমলকে গুরুতর অবস্থায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শহরে উত্তেজনা বিরাজ করছে। দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সকাল ১১টার দিকে কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগ মোহিনী মিল গেট থেকে জাতীয় শোক দিবসের র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি শহর প্রদক্ষিণ করে মজমপুর গেটে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন নেতৃবৃন্দ।

এ সময় শহর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোমিনুর রহমান মোমিজ ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন সবুজের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার (এসপি) প্রলয় চিসিম জানান, সংঘর্ষের সময় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত তিনজনকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে দুপুর একটার দিকে সবুজ নামে একজন অপারেশন টেবিলে মারা যান। শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে র‌্যাব-পুলিশ অবস্থান নিয়েছে।

শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতা দাবি করেছেন, নিহত সবুজ যুবলীগের কর্মী ছিলেন।