মেইন ম্যেনু

শোলাকিয়ার ঘটনায় মামলা, আসামি ২

কিশোরগঞ্জ: শোলাকিয়ায় ঈদগাহে জঙ্গি হামলায় মামলা দায়ের হয়েছে। এতে আটক দু’জনসহ আসামি করা হয়েছে অজ্ঞাত কয়েকজনকে।

রোববার (১০ জুলাই) দুপুরে পাকুন্দিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি, তদন্ত) মোহাম্মদ সামছুদ্দিন বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জ সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোশাররফ হোসেন।

ওসি জানান, ‘সন্ত্রাস দমন আইন/০৯ (সংশোধনী)/১৪ এর ৬ (২)/ ৮/৯/১০/১২/১৩’ ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। এতে আটক দু’জনসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার নম্বর ১৪, তারিখ: ১০-০৭-২০১৬।

বৃহস্পতিবার (৭ জুলাই) ঈদের দিন সকাল ৯টার দিকে কিশোরগঞ্জ শহরের শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠের পাশে আজিমুদ্দিন হাইস্কুলের কাছে পুলিশের তল্লাশি পয়েন্টে হামলা চালায় একদল জঙ্গি। ওই সময় তাদের ছোঁড়া হাতবোমার বিস্ফোরণে নিহত হন জহিরুল ইসলাম ও আনসারুল নামে দুই পুলিশ সদস্য। এসময় দু’পক্ষের গোলাগুলিতে নিহত হয় এক জঙ্গি। গোলাগুলিতে প্রাণ হারান এক গৃহবধূও।

ওই ঘটনায় আটক হয়ে র‌্যাবের হেফাজতে থাকা শরিফুল ইসলাম ওরফে সফিউল ইসলাম ওরফে সাইফুল ইসলামকে (২৩) মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে। তিনি দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে আবদুল হাইয়ের ছেলে।

মামলায় দ্বিতীয় আসামি করা হয়েছে জাহিদুল হক ওরফে তানিমকে। তার বাবার নাম আবদুস সাত্তার। তিনি কিশোরগঞ্জের পশ্চিম তারাপাশার বাসিন্দা।

মামলায় আসামির তালিকা থেকে নিহত জঙ্গি আবির রহমানের নাম বাদ দেয়া হয়েছে। তিনি কুমিল্লা দেবীদ্বার ত্রিবিদ্যার অধিবাসী। পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলির সময় তিনি ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন।