মেইন ম্যেনু

শ্বাস পরীক্ষা করেই ১৭ রোগ নির্ণয় করতে পারবে যন্ত্রটি

আপনার শ্বাস পরীক্ষা করেই ক্যান্সারের মতো রোগ নির্ণয় করতে পারে যন্ত্র। সম্প্রতি এক গবেষণায় এ ধরনের যন্ত্র কতগুলো রোগ নির্ণয় করতে পারে সে বিষয়ে অনুসন্ধান করা হয়েছে।

এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফক্স নিউজ।

গবেষক হোসাম হাইক সম্প্রতি তার উদ্ভাবিত যন্ত্র ‘ইলেক্ট্রনিক নোস’ আরও উন্নত করার কাজ করছেন। আর এর মাধ্যমে কী ধররনের কাজ করা যাবে তা জেনে তিনি নিজেই উচ্ছসিত।

স্মিথসোনিয়ান ম্যাগাজিন থেকে জানা গেছে, গবেষকরা এ ডিভাইসটি ব্যবহারের অনুসন্ধানে ১৪ শ মানুষকে অন্তর্ভুক্ত করেন। এতে জানা গেছে, ডিভাইসটি ১৭টি ভিন্ন ধরনের রোগ নির্ণয় করতে পারে।

যেসব রোগ নির্ণয় করতে পারে এ ডিভাইসটি তার মধ্যে রয়েছে পার্কিনসনস, ফুসফুসের ক্যান্সার, কিডনি নষ্ট হওয়া, ওভারিয়ান ক্যান্সার ও প্রোস্টেট ক্যানার। এসব রোগ নির্ণয়ে যন্ত্রটি ৮৬ শতাংশ নির্ভুলভাবে কাজ করতে পারে।

চিকিৎসাবিদ্যার হিসাবে এ হার মোটেই কম নয়।

হায়েকের ডিভাইসটি মূলত মানুষের শ্বাস পরীক্ষা করে। এ ক্ষেত্রে শ্বাসের গন্ধ থেকেই এসব রোগ নির্ণয় করতে পারে এটি। মানুষের শ্বাসের মধ্যে শুধু বাতাসই নয় রয়ে যায় নানা অর্গানিক অংশ ও মলিকিউলার। এসব পরীক্ষা করেই রোগগুলো নির্ণয় করতে পারে যন্ত্রটি।

অনেক ক্ষেত্রে অন্য কোনো লক্ষণ প্রকাশিত হওয়ার আগেই শ্বাস থেকে রোগগুলো নির্ণয় করতে পারছে যন্ত্রটি। আর এ কারণে এ যন্ত্রটি রোগ নির্ণয়ে অত্যন্ত সম্ভাবনাময় বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে এখনও এ যন্ত্র বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদিত হচ্ছে না। ভবিষ্যতে হয়ত এ যন্ত্রের সাহায্যে রোগ নির্ণয় অত্যন্ত সহজ হয়ে যাবে। আর এতে সঠিক সময়ে রোগ নির্ণয় ও সঠিক চিকিৎসায় রোগীর জীবন বাঁচানো সহজ হবে।

এ বিষয়ে গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে ‘আমেরিকান কেমিক্যাল সোসাইটি ন্যানো’ জার্নালে।



« (পূর্বের সংবাদ)