মেইন ম্যেনু

শ্যামনগরে কোরবানীর পশুর হাট জমে উঠেছে

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলায় কোরবানীর পশুর হাট জমে ঊঠেছে।উপজেলা সদরের নকিপুর কোরবানীর পশুর হাট শনিবার ক্রেতা বিক্রেতাদের সুবিধার্তে নকিপুর পাইলট হাই স্কুল মাঠে গরুর হাট বসেছে।ক্রেতা এবং বিক্রেতাদের মতে এবার পশুর হাটে দর যাচাই বাছাই চলছে বা দর কষাকষি চলছে বেশী।এ ছাড়া ক্রেতাদের মতে এবার কোরবানীর পশুর দাম বেশী।ফলে এখন পর্যন্ত বিক্রি বেশ কম বলে বিক্রেতারা জানান।

শনিবার উপজেলার নকিপুর কোরবানীর পশুর হাটে সরজমিনে দেখা যায় একটি গরুর দাম চাওয়া হয়েছে ২ লক্ষ ১০ হাজার।গরুর মালিক উপজেলার ভূরুলিয়া গ্রামের আবুল হোসেন বলেন ক্রেতারা ১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত বলেছেন।জানা যায় এই হাটে এই গরুটির সর্বোচ্চ দাম চাওয়া হয়েছে। উপজেলার জয়নগর গ্রামের আব্দুস সবুর তার গরুটির দাম চেয়েছেন ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকা।

তিনি বলেন ক্রেতা দাম বলেছেন ৯০ হাজার টাকা।নুরনগর গ্রামের তপন কুমার গরুর দাম চেয়েছেন ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকা।ক্রেতা ৯৫ হাজার টাকা বলেছেন।সকল বিক্রেতারা বলেন কোরবানীর একটি গরু দুই তিন বছর রেখে কোরবানীর পশুর উপযোগি করে তুলতে বেশ ব্যয় বহুল।এ কারণে বিক্রেতারা নিজস্ব দামের জায়গা থেকে খুব বেশী নিচে নামতে পারছেন বলে জানান।

এ দিকে পশুর হাটে কোরবানীর পশু কিনতে আসা মুন্সিগঞ্জের জয়নাল গাজী,শ্যামনগরের আকবর হোসেন,ঈশ্বরীপুরের নুরনবী সহ অনেকে বলেন এবার দেশীয় গরুর দাম অনেক বেশী চাওয়া হচ্ছে।আবার দেখা যাচ্ছে বাজারে যে সকল গরু বিক্রী হচ্ছে তার দাম ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকার মধ্যে থাকছে।সামথ্য অনুযায়ী কোরবানী পশু হিসেবে অনেকে ছাগল ক্রয় করছেন।কিন্ত ছাগলের দামও বেশী বলছে বলে নকিপুর গ্রামের ক্রেতা ডাঃ আকবর হোসেন জানান।

উপজেলার বৃহত্তম পশুর হাটে ক্রেতা বিক্রেতাদের অর্থ লেনদেনের সুবিধার্তে বিকাশের একটি কাউন্টার খোলা হয়েছে।কাউন্টার কতৃপক্ষ বলছেন শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রায় লক্ষাধিক টাকা লেনদেন করেছেন।এ ছাড়া পশুর হাটে জাল টাকা সনাক্ত করনে একটি ব্যাংকের পক্ষ থেকে মেশিন রাখা হয়েছে।এবং হাট চলাকালীন ক্রেতা বিক্রেতাদের সব ধরনের নিরাপত্তার জন্য শ্যামনগর থানা পুলিশও সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করছেন।

তবে ক্রেতা বিক্রেতা উভয় বলছেন সামনে পবিত্র ঈদুল আযহার দিন ক্ষণ বাঁকী থাকায় সামনের হাটে কোরবানীর পশু বিক্রী হবে।বিশেষ করে যারা ফিরে যাচ্ছেন তারা হয়তো আগামী হাটে কিনবেন এ আশা প্রকাশ করলেন বেশ কিছু পশু বিক্রেতা।নকিপুর পশুর হাটের কর্তাবৃন্দ বলছেন এবার বিক্রী কম এবং দাম বেশী।