মেইন ম্যেনু

শ্রীমঙ্গলে চলছে বিদ্যার দেবী বরণের শেষ সময়ের প্রস্তুতি

সৌরভ আদিত্য, শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ আসছে আগামী ১লা ফেব্রুয়ারি বিদ্যার দেবী শ্রী শ্রী সরস্বতী মাতার পূজা। জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে দিতে এক বছর পর আবারও আসছে বিদ্যা দেবী, জ্ঞানদাত্রী দেবী স্বরস্বতী। বিদ্যার দেবী সরস্বতী মাযের পূজাকে সামনে রেখে স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা ব্যস্থ সময় কাটাচ্ছেন উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে। বিদ্যার দেবী প্রতিবছরের ন্যায় এবারও আসছে এ অপেক্ষায় প্রহর গুনছে সনাতন ধর্মালম্বীসহ সকল শিশু কিশোররা। বিদ্যা ও সংগীতের দেবী সরস্বতী। সনাতন ধর্মাবম্বলীদের অন্যতম প্রধান উৎসব এই সরস্বতী পূজা। সনাতনী প্রতিটি পরিবার গুরুত্বের সঙ্গে সরস্বতী পূজা উদযাপন করে থাকে। ছাত্রছাত্রীরাই পূজায় মনোযোগী হয় বেশি।

এদিকে,পূজার প্রতিমা নির্মাণকে কেন্দ্র করে ব্যাস্ত সময় পার করছেন মৌলভীবাজার জেলার সবচেযে বেশি পূজা অনুষ্টিত হওয়া শ্রীমঙ্গল উপজেলার প্রতিমা কারিগররাও।

প্রতিমা কারিগর হনুমান পাল বলেন,অনেক প্রতিমার নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। কিছু সংখ্যক কাজ এখনো হাতে আছে। তবে পূজোর আগেই সব সম্পূর্ণ করা যাবে।
তারমধ্যে অনেকেই প্রতিমা নিয়ে যাচ্ছে। আমরা সারা বছরই প্রতিমা নির্মাণ করি। তবে অন্য সময়ের তুলনায় এসময়ে ব্যাস্ত সময় পার করছি বলে জানান তিনি।

এদিকে সরেজমিনে অনেক পূজার মন্দিরে গিয়ে দেখা যায়, ইতেমধ্যেই পূজোর স্টেজের কাজ সহ সৌন্দর্য্য বদ্ধনের কাজ শুরু হয়েছে । এ বিষয়ে সূর্য্যদোয় ছাত্র সংঘ রুপশপুর আ/এ এর এ বারের সভাপতি শ্রী সৌরভ রায় ও সাধারন সম্পাদক তনময় পাল বলেন, আমরা গত বারেই চেয়ে এবারের পূজো অনেক উৎসব মূখর ও ব্যক্তিক্রম ধর্মী কিছু করার চেষ্টায় আছি।

শ্রীমঙ্গল পৌর সভার পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শ্রী সনজয় রায় রাজু জানিয়েছেন, এবার পৌরসভাসহ উপজেলা প্রায় তিনশতাধিক পূজার আয়োজন করা হয়েছে। নিরাপত্তার বিষয়ে তিনি বলেন, প্রশাসনের সাথে আমাদের সার্বিক যোগাযোগ রয়েছে।