মেইন ম্যেনু

“শ্রীমঙ্গলে ঢাকের বাদ্যে আরতি করবো, ডিজে পার্টি বর্জন করবো, এবারের প্রতিপাধ্য”

সৌরভ আদিত্য শ্রীমঙ্গল প্রতনিধিঃ দেশ ব্যাপি আসন্ন দূর্গাপুজাকে সামনে রেখে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি ৷ পূজার মন্ডপে মন্ডপে চলছে শেষ মূহুর্তের সাজসজ্জার কাজ ৷ বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ শ্রীমঙ্গল পৌর শাখার গত ৩ সেপ্টেম্বরের সভায় এবং গত ১৬ সেপ্টম্বরের সভায় শ্রীমঙ্গল পৌর শখার অধীন শহর এবং শহর তলীর প্রায় ২০ টি পূজা মন্ডপের সভাপতি/সম্পাদকের আলোচনায় উঠে আসে দূর্গা পূজায় যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য বজায় রাখতে সিদ্ধান্ত ৷ এই সময় অনেক বক্তা তাদের বক্ত্যেবে বলেন আমরা পূজার নামে অপসংস্কৃতি ও পুজায় যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য বজায় রাখতে পারি না। তাই ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য বজায় রাখা ও পূজায় অপসংস্কৃতি বন্ধে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ শ্রীমঙ্গল পৌর শাখাকে যুগউপযোগী সিদ্ধান্ত গ্রহন ও বাস্তবায়নের অনুরোধ করেন সভায় উপস্থিত পূজা মন্ডপের সভাপতি/সম্পাদক এবং সদস্যবৃন্দ।

পরে সর্বসম্মতিক্রমে বিগত ০৩/০৯/১৬খ্রিঃ গৃহিত সিদ্ধান্ত অনুমোদন দিয়ে সকলে এক সাথে উচ্চ কন্ঠে উচ্চরন করেন “এবার পূজোয় ঢাকের বদ্যে আরতি করবো, ডিজে পার্টি বর্জন করবো”।

এই সময় বক্তরা ও বিভিন্ন পূজা মন্ডপের নেত্রিবৃন্ধ বাংলাদেশ পুজা উদযাপন পরিষদ শ্রীমঙ্গল পৌর শাখাকে এই সিদ্ধান্ত অনুমোদ দেওয়ার জন্য প্রশংসা করেন সেই সাথে এই সব সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে পুজা উদযাপন পরিষদকে সর্বাত্মক সহোগীতা করবেন বলে আশ্বাস প্রদান করেন

উল্লেখ্য,প্রেস বিজ্ঞপ্তি অনুসারে যা জানা যায়, নিম্নে তা হুবহু তুলে ধরা হল-বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ শ্রীমঙ্গল পৌর শাখার সাধারন সভায় সর্বসম্মতিক্রমে নিমোক্ত সিন্ধান্ত সমূহ গৃহীত হয়ঃ-

০১। সাংগঠনিক আলোচনার মধ্যে সর্বসম্মতিক্রমে সংগঠনের সাধারন সম্পাদক নিষ্ক্রিয় থাকার কারনে যুগ্ম
সাধারন সম্পাদকে ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

০২। বিবিধ আলোচনায় বাৎসরিক সদস্য চাঁদা অতিস্বত্তর পরিশোধের অনুরোধ করা হয়।

০৩। আগামী ২৩শে সেপ্টেম্বর রোজ শুক্রবার ধর্মাদেশনা আলোচনা সভা ও সম্মননা প্রদানের সিন্ধান্ত গৃহিত হয়।

০৪। প্রতিটি পূজা মন্ডপের স্বেচ্ছাসেবকের তালিকা তৈরি করে অত্র পরিষদের নিকট জমা প্রদানের নির্দেশ প্রদান করা হয়।

০৫। দূর্গা পূজায় যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য বজায় রেখে পূজা মন্ডপ গুলোকে ধর্মীয় সংগীত পরিবেশনের
নির্দেশ প্রদান করা হয়।

০৬। দূর্গা পূজায় সাউন্ড সিস্টেম ( ডি,জে) ব্যবহার না করার নির্দেশ প্রদান করা হয়।
অন্যথায় অমান্যকারী সংশ্লিষ্ট পূজা মন্ডপকে ৫০,০০০/- (পঞ্চাশ হাজার) টাকা জরিমানা ও পূজার দিন গুলোর জন্য সাউন্ড সিস্টেম (ডি,জে) জব্দ করা এবং বিজয়া দশমীর শোভাযাত্রায় অংশ গ্রহন করতে না দেওয়ার সিন্ধান্ত
সর্বসম্মতিক্রমে গ্রহন করা হয়।