মেইন ম্যেনু

শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ফাইনালে ভারত

এশিয়া কাপের গুরুত্বপূর্ণ লড়াইয়ে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ভারত। বিরাট কোহলির দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে লঙ্কানদের পাঁচ উইকেটে হারায় তারা। এই জয়ে আগামী ৬ মার্চ ফাইনালের লড়াইয়ে সবার আগে পৌঁছে গেল ধোনিবাহিনী।

শ্রীলঙ্কার দেয়া ১৩৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতেই কুলাসেকেরার বোলিং তোপে পরে ভারত। দলীয় ১৬ রানেই দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে দেন এ লঙ্কান পেসার। তবে তৃতীয় উইকেট জুটিতে সুরেশ রায়নাকে সঙ্গে নিয়ে ৫৪ রানের জুটি গড়ে সে চাপ সামলে নেন বিরাট কোহলি।

২৬ বলে ২৫ রান করে দাসুন শনাকার বলে আউট হন রায়না। এরপর যুবরাজ সিংকে নিয়ে আরও একটি ৫১ রানের দারুণ জুটি গড়েন কোহলি। ১৮ বলে ৩টি চার ও ৩টি ছক্কায় করেন ৩৫ রান করে আউট হন যুবরাজ। এরপর বাকি কাজ অধিনায়ক ধোনিকে সারেন তিনি। ফলে চার বল বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় তারা।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৬ রান করেন কোহলি। ৪৭ বল মোকাবেলা করে এই রান করতে ৭টি চার মারেন ভারতের এ পোস্টার বয়। শ্রীলঙ্কার পক্ষে ২১ রান নিয়ে ২টি উইকেট পান কুলাসেকেরা।

এর আগে মঙ্গলবার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে শ্রীলঙ্কা। ব্যাটিংয়ে নেমেই ভারতের পেসারদের তোপে পরে তারা। দুই পেসার আশিস নেহরা ও জাসপ্রিত বুমরাহর বোলিং তোপে দলীয় ১৫ রানে দুই উইকেট হারায় তারা। এরপর লঙ্কান শিবিরে আঘাত হানেন হারদিক পাণ্ডে।

চতুর্থ উইকেট জুটিতে মিলিন্দা সিরিবর্দনা ও চামারা কাপুগেদেরা ৪৩ রানের জুটি গড়ে দলের স্কোর একশত পার করেন। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩০ রান করেন কাপুগেদেরা। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২২ রান করেন সিরিবর্দনা। এছাড়া তিলকারাত্নে দিলশান ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ উভয়ই ১৮ রান করে করেন।

শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে নয় উইকেট হারিয়ে ১৩৮ রান সংগ্রহ করে শ্রীলঙ্কা। ভারতের পক্ষে পাণ্ডে, অশ্বিন ও বুমরাহ ২টি করে উইকেট পান। একটি উইকেট নেন নেহরা।