মেইন ম্যেনু

সংকেতে প্রাইভেটকার না থামায় পুলিশের গুলি

পুলিশের চেকপোস্টে সংকেত দেওয়ার পর না থামায় শর্টগানের গুলি করেছে পুলিশ। পরে ধাওয়া করে সাদা রংকের একটি প্রাইভেটকার জব্দ করেছে পুলিশ। তবে ওই গাড়িতে অবৈধ কিছু পাওয়া যায়নি।

রাজধানীর উত্তরার-৭ নম্বর সেক্টরে একটি চেকপোস্টে বেলা ১১টায় এ ঘটনা ঘটে। পরে তাৎক্ষণিক ধাওয়া করে ৫ নম্বর সেক্টর থেকে গাড়িটি জব্দ করা হয়। তবে চালক পালিয়ে যায়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে উত্তরা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) নুরে আলম জানান, গাড়িটি আটক করে উত্তরা পূর্ব থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এর মালিককে খোঁজ করা হচ্ছে। গাড়িতে কারা ছিল পুলিশ তাদের আটকের চেষ্টা করছে।

ডিএমপির একটি সূত্র জানায়, পুলিশের ধাওয়া খেয়ে চালক প্রাইভেটকারটির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পথচারীদের উপরে তুলে দেয়। এতে কয়েকজন আহত হন। তবে তাদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

সূত্র জানায়, গাড়ির ভেতরে স্কলাস্টিকা স্কুলের একটি ছেলের ড্রেস পাওয়া গেছে। গাড়িরটির কাগজপত্রে এএসএম আতিক নামে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীর নাম পাওয়া গেছে।

উত্তরা পশ্চিম থানার উপপরিদর্শক মঈনুল ইসলাম বলেন, বেলা ১১টায় জসীমউদ্দিন মোড়ে পুলিশের চেকপোস্টে বিমানবন্দর এলাকা থেকে আসা দ্রুতগামী সাদা রংয়ের একটি প্রাইভেটকার আসে। কারটিকে থামানোর জন্য সংকেত দেয় পুলিশ। কিন্তু চালক কারটি না থামিয়ে পালিয়ে যায়। গাড়িটিকে ধাওয়া দিলে রাজলক্ষ্মী এলাকার ব্যারিকেড ভেঙ্গে ৫ নম্বর সেক্টরের দিকে পালিয়ে যায়। এসময় পুলিশ দুই রাউন্ড শর্টগানের গুলি ছোড়ে। এরপর ৫ নম্বর সেক্টরের ৯৯ সড়কের ২৬ নম্বর বাসার সামনে প্রাইভেটকারটি আটক করা হয়। তবে চালক পালিয়ে যায়।দ্যরিপোর্ট