মেইন ম্যেনু

সংসদে যে প্রকৃত বিরোধী দল নেই, সেই বার্তাই জনগণকে দিয়ে গেছেন চীনা প্রেসিডেন্ট

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বাংলাদেশের প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টিকে গুরুত্ব দেননি বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেছেন, সংসদে যে প্রকৃত বিরোধী দল নেই, সেই বার্তাই বাংলাদেশের জনগণকে দিয়ে গেছেন চীনের প্রেসিডেন্ট।

আজ শনিবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে চীনের প্রেসিডেন্টের সফর নিয়ে জাগপা আয়োজিত আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

চীনের প্রেসিডেন্টের বাংলাদেশ সফর : ভূ-আঞ্চলিক রাজনীতিক নতুন বার্তা শীর্ষক আলোচনা সভায় খন্দকার মোশাররফ আরো বলেন, চীন সব সময় শান্তির পক্ষে। কোনো আধিপত্যবাদ বা সম্প্রসারণবাদে তারা বিশ্বাসী নয়।

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং গতকাল শুক্রবার বাংলাদেশে এসে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠক করেন। কিন্তু দশম জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেত্রী জাতীয় পার্টির রওশন এরশাদের সঙ্গে কোনো বৈঠক করেননি। এই নিয়ে আজ কথা বলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাধ্যমেই চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন হয়েছিল উল্লেখ করে খন্দকার মোশাররফ বলেন, তারই ধারাবাহিকতায় চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হচ্ছে। বাংলাদেশে চীনের প্রেসিডেন্টের এই সফর খুবই তাৎপর্য ও গুরুত্বপূর্ণ বলেও মনে করেন তিনি। এই সফরের মাধ্যমে চীনের প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশের জনগণকে বেশ কিছু বার্তা দিয়ে গেছেন বলেও মনে করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘রাষ্ট্রপতিরা একটা দেশে এলে, এই দেশে এলে সরকারি দল এবং বিরোধী দলের সঙ্গে কথা বলে। আর বিরোধী দলকে স্বীকৃতি দেয়, সেই বিরোধী দলকে যে বিরোধী দল পার্লামেন্টে আছে। এটা পরিষ্কারভাবে এই দেশের জনগণকে এই ম্যাসেজ দিয়ে গেলেন যে এই পার্লামেন্ট যেহেতু নির্বাচিত পার্লামেন্ট নয়, এই পার্লামেন্টে প্রকৃত জনগণের প্রতিনিধি বা বিরোধী দল নেই। সে জন্য এই বিরোধী দলকে মহামান্য রাষ্ট্রপতি কোনো গুরুত্ব দিলেন না।’