মেইন ম্যেনু

সকালে ঘুম থেকে ওঠা আর হবে না কষ্টকর

রাতে ভাল ঘুম না হওয়া প্রযুক্তি নির্ভর আধুনিক যুগের একটি সাধারণ সমস্যা। রাতে ঠিকমত ঘুম হয় না, সকালে উঠতে ইচ্ছা করে না, জোর করে উঠলে শরীর খারাপ হয়ে যায়, সারাদিন মেজাজ খিটখিটে থাকে। বিরক্তিকর এই অবস্থা ক্ষতিগ্রস্থ করে আপনার কাজকে। যখন আপনি ঠিক সময়মত অফিস পৌছতে পারেন না তখন স্বাভাবিকভাবেই আপনার সব কাজে ব্যাঘাত ঘটতে থাকে।

তাই রাতে সময়মত ঘুমানোর প্রাকটিস করা জরুরি। একই সাথে খেয়াল রাখতে হবে ঘুম যেন ভাল হয় এবং সকালে সময়মত ওঠা যায়। সেজন্য করতে পারেন এই কাজগুলো-

দুপুরে খাওয়ার সময় একটু হাঁটুন
দিনের বেলা সারাক্ষণ বসে কাজ করা হয়। খাওয়ার সময় খাবার গ্রহণের আগে বা পরে কিছু সময় হাঁটাহাঁটি করুন। এমনিতেই আমাদের সবারই উচিৎ প্রতিদিন বাইরে কিছু সময় কাজ করা। সেটা ব্যায়াম হতে পারে, হাঁটাহাঁটি, দৌড়ানো বা অন্য যে কোন কাজ হতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে, এতে রাতে ঘুম ভাল হয় এবং সকালে ঘুম থেকে উঠতে কম কষ্ট হয়।

সকালে নয় সন্ধ্যায় ব্যায়াম করুন
গবেষণায় দেখা গেছে, যাদের ঘুমের সমস্যা রয়েছে তাদের জন্য সকালের চেয়ে সন্ধ্যায় বা কাজের শেষে ব্যায়াম বেশী কাজে দেয়। ঘুমের আগে আপনি যখন ব্যায়াম করছেন তখন শরীর ক্লান্ত হয়, মাংসপেশী শিথিল হয়ে আসে, ঘুম ভাল হয়।

সন্ধ্যা ৮টার পর টেলিভিশন দেখবেন না
এই অভ্যাস করা খুবই কঠিন, তাই না। কারণ, তখনই তো মাত্র আমাদের টিভি দেখা শুরু। কিন্তু গবেষণায় দেখা গেছে টিভি থেকে যে নীল আলো বের হয়ে আসে তা আমাদের মেলাটোনিন নামক ঘুম হরমোন তৈরিতে বাধা দেয়। তাই ঘুমাতে যাওয়ার বেশ কিছুক্ষণ আগে থেকেই টিভি দেখা বন্ধ করুন।

ঘরে ব্যবহার সুগন্ধি বাতি
ঘরকে ঘুমের উপযুক্ত করা খুবই জরুরি। তাই সুগন্ধি মোমবাতি ব্যবহার করুন। এটি আপনাকে রিল্যাক্স হতে সাহায্য করবে। দ্রুত ঘুমিয়ে পড়া এবং সকালে সঠিক সময়ে জেগে ওঠার জন্য ঘরের মাঝে শান্তময় পবিত্র অনুভূতি থাকা জরুরি।

লোভনীয় ব্রেকফাস্ট
বিছানায় যাওয়ার আগে নিজেকে প্রমিজ করুন, সকালে খুব মজাদার কিছু খাবেন নাস্তায়। ঘুমাতে যাওয়ার ঠিক আগে কখনো খাবেন না। বেশ কিছুক্ষণ আগে খাওয়ার প্রাকটিস করুন। এতে সকালে আপনি ক্ষুদার্থ অনুভব করবেন। রাতে নিজেকে করা প্রমিজ আপনাকে সকালে টেনে তুলবে বিছানা থেকে!

ঘুম পেলেই ঘুমাতে যান
আপনার যখনই ঘুম পাবে তখনই শুয়ে পড়ুন। নিয়মিত ঘুমের সময় থেকে অনেক তাড়াতাড়ি হলেও চেষ্টা করুন তখনই বিছানায় যেতে। এতে করে আপনার ঘুম ভাল হবে। ঘুমে যখন চোখ বুজে আসছে তখন যদি আপনি না ঘুমিয়ে জোর করে জেগে থাকেন, এতে এক প্রকার ক্লান্তি তৈরি হয়, যা ক্ষতিগ্রস্থ করে সকালের ঘুমকে।

গান শুনুন
ঘুমাতে যাওয়ার সময় একটি চমৎকার গান শুনুন। এতে মাইন্ড রিল্যাক্স হবে। ঘুম ভাল হবে। মস্তিষ্ককে রিল্যাক্স করার জন্য নির্দিষ্ট বিটের গান শোনা খুবই জরুরি। আপনি যখন সকল স্ট্রেস মুক্ত হয়ে বিছানায় যান তখন নিঃসন্দেহে আপনার ঘুম ভাল হয়।