মেইন ম্যেনু

সকালে সন্ধ্যার আবহ, স্বস্তির বৃষ্টিতে দুর্ভোগ

বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই মুষলধারে বৃষ্টির কারণে নাকাল রাজধানীবাসী। গত কয়েকদিনের প্রচণ্ড দাবদাহের পর বুধবার রাজধানী ও এর আশপাশ এলাকায় স্বস্তির বৃষ্টি হয়। বৃহস্পতিবারও সকাল ৭টার পর থেকে তুমুল বৃষ্টি শুরু হয়। মুষলধারে বৃষ্টি চলে সকাল পৌনে ৮টা পর্যন্ত। সকাল ৮টার দিকে বৃষ্টির ফোটা ঝরা বন্ধ হলেও বিরতি দিয়ে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে আবার শুরু হয় বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়া। আগামী কয়েকদিন এ বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

বৃহস্পতিবার ঢাকার পাশাপাশি নারায়ণগঞ্জ, ময়মনসিংহ, সিলেট, নেত্রকোনা, মাদারীপুর, খাগড়াছড়িতে সকাল থেকে বৃষ্টি হচ্ছে। রাজশাহী, যশোর, খুলনা, মংলা এলাকায় আকাশ মেঘাচ্ছন্ন রয়েছে।

এদিকে, টানা বৃষ্টির কারণে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এতে নগরবাসীকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

rain

বৃষ্টিতে সকালে ঘর থেকে বের হয়েই রাজধানীবাসীকে নাকাল হতে হচ্ছে। বৃষ্টিপাতের কারণে শান্তিনগর, মগবাজার, মালিবাগ-মৌচাক, মুগদা, কাজলা, শ্যামপুর, জুরাইন, ডেমরা, ফরিদাবাদ, নয়াপল্টন, রাজারবাগ, শ্যাওড়াপারা এবং মিরপুরসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার সড়ক তলিয়ে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। কোথাও কোথাও হাঁটু পানি জমে গেছে।

এ অবস্থার কারণে সকালে পথচারীসহ বিভিন্ন পেশাজীবী ব্যক্তিকে ভোগান্তিতে পড়তে হয়। হাঁটু পর্যন্ত প্যান্ট গুটিয়ে ও জুতা হাতে নিয়ে অনেকেই পানি জমে থাকা স্থানটি পার হন। আর যারা যাতায়াতের জন্য রিকশা, অটোরিকশা বা অন্য কোনো যান ব্যবহার করছেন তাদেরকে একটু বেশি ভাড়া গুণতে হচ্ছে।

index

বৃহস্পতিবার রাজধানী ছাড়াও রাজশাহী, রংপুর, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ফরিদপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, কুমিল্লা, নোয়াখালী, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও সিলেট অঞ্চলসমূহের ওপর দিয়ে দমকা ও ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে বলে বুধবার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছিল।

এদিক, বৃষ্টি ও বৈরী আবহওয়ার কারণে মেঘনা নদীর ঢাকা-চাঁদপুর ও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে সকাল থেকে লঞ্চ চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে বিআইডব্লিউটিএ।