মেইন ম্যেনু

সকালে হঠাৎই স্কুলে ঢুকে পরে চিতাবাঘ, তারপরই শুরু হয় বাঘের তাণ্ডব (ভিডিও)

বেঙ্গালুরুর হোয়াইটফিল্ড এলাকার ভিবজিওর স্কুলে একটি চিতাবাঘ ঢুকে পড়ে। রবিবার সকালে স্কুল চত্বরে যে বিনা বাধায় ঘুরে বেড়াচ্ছিলো বাঘটি। স্কুলে চিতাবাঘ ঘুরে বেড়াচ্ছে, সিসিটিভিতে তা দেখার সঙ্গে সঙ্গে স্কুল কর্তৃপক্ষ খবর পাঠায় বন দপ্তর এবং পুলিশের কাছে।

এদিন স্কুল বন্ধ ছিল। তবে বড়সড় কিছু না ঘটলেও বিপদ ঘটেছে। চিতাবাঘের হামলায় জখম হয়েছেন চার জন।
ভারতীয় এক সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে, চিতাবাঘটিকে সিসিটিভিতে দেখার পর স্কুল কর্তৃপক্ষ বন দপ্তর এবং পুলিশের কাছে খবর পাঠায়।

সঙ্গে সঙ্গে স্কুলে এসে হাজির হন বন দপ্তরের কর্মীরা এবং স্থানীয় থানার পুলিশ। চলে আসেন বিভিন্ন চ্যানেলের কর্মীরা। চিতাবাঘ দেখতে স্কুলের বাইরে তখন ভিড় জমাতে শুরু করেছেন সাধারণ মানুষজন।

শুরু হয় চিতাবাঘের খোঁজে তল্লাশি। বেশ কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় ঘুম পাড়ানি গুলি ছুড়ে কাবু করা হয় তাকে। তার পর চিতাবাঘটিকে স্থানীয় পশু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বন দপ্তরের কর্তারা।

চিতাবাঘটির হামলায় জখম হয়েছেন চার জন। তাঁদের মধ্যে তিন জন বন দপ্তরের কর্মী। এক জন স্থানীয় ছবি শিকারি। স্কুলের সুইমিং পুলের পাশে ছবি তোলার জন্য চিতাবাঘটির খুব কাছে চলে গিয়েছিলেন তিনি।

এর আগে ২০১২ সালে এই এলাকায় চিতাবাঘ ঢুকে পড়েছিল। ২০১৫ সালের জুলাইয়ে কর্নাটকের চিকমাগালুর জেলার টিএমএস স্কুলেও এক বার একটি চিতাবাঘ ঢুকে পড়েছিল। জখম করেছিল তিন জনকে।

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন…