মেইন ম্যেনু

‘সদস্য ও অর্থ সংগ্রহ করতো চার নারী জঙ্গি’

জঙ্গি তৎপরতায় জড়িত থাকার অভিযোগে আটক চার নারী জঙ্গি জঙ্গি সংগঠন জেএমবির সদস্য ও অর্থ সংগ্রহের কাজ করতো বলে জানিয়েছে র‌্যাব। রাজধানীর মগবাজার, মিরপুর ও গাজীপুর থেকে এদেরকে আটক করা হয়।

এই চারজনকে আটকের বিষয়ে আগেই গণমাধ্যমকর্মীদের ক্ষুদে বার্তা পাঠিয়েছিল আইনশৃঙ্খলা বাহিনীটি। দুপুরে র‌্যাব-৪ এর সদরদপ্তরে সংবাদ সম্মেলন করে এদের বিষয়ে বিস্তারিত জানান কর্মকর্তারা। র‌্যাব জানায়, এই চার ‘জঙ্গি’ হলেন,ইশতিসা আফরোজ ঐশী, আকলিমা রহমান মনি, ইশরাত জাহান মৌ ও খাদিজা পারভীন মেঘনা।

র‌্যাব-৪ এর পরিচালক লুৎফুল কবির জানান, চারজনের মধ্যে তিন জন আকলিমা, মৌ ও মেঘলা রাজধানীর বেসরকারি মানারাত বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের শিক্ষার্থী। জামায়াতসংশ্লিষ্টরা এই বিশ্ববিদ্যালয়টি পরিচালনা করেন।

আটক আরেক নারী ঐশী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস পাস করেছেন। তবে তিনি ও আকলিমা জেএমবির নারী দলের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতেন।

সাম্প্রতিক জঙ্গি তৎপরতায় জেএমবির সম্পৃক্ততার অভিযোগ করছে পুলিশ ও র‌্যাব। দুটি বাহিনীর অভিযানেই গত এক মাসে জঙ্গি সংগঠনটির বেশ কজন সদস্যকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে আছেন নারীরাও।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দাবি, পুরুষদের পাশাপাশি নাশকতার জন্য জেএমবি নারী সদস্যদেরকেও সক্রিয় করার চেষ্টা করছে। এই নারীদের মধ্যে আত্মঘাতী আছে বলেও জানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

র‌্যাব কর্মকর্তা লুৎফুল কবির জানান, গত ২১ জুলাই গাজীপুরের টঙ্গীতে অভিযান চালিয়ে জেএমবির দক্ষিণাঞ্চলের আমির মাহামুদুল হাসানকে গ্রেপ্তার করেন তারা। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জেএমবির নারী সদস্যদের সন্ধান পাওয়া যায়।

এই তথ্য পেয়েই নারী জঙ্গিদের গ্রেপ্তারে র‌্যাব অভিযানে নামে বলে জানান লুৎফুল কবির। সোমবার দিবাগত রাতে এই চারজনকে আটক করা হয় বলে জানান তিনি। এ সময় তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ জিহাদি বই ও বিভিন্ন প্রকার অডিও ও ভিডিও উদ্ধার করা হয়।

এক প্রশ্নের জবাবে লুৎফুল কবির জানান, রাজধানীতে কতজন নারী জেএমবি সদস্য আছে সে বিষয়ে র‌্যাবের কাছে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য নেই।