মেইন ম্যেনু

সন্তান প্রসবের তিন ঘন্টা আগে টের পেলেন তিনি ‘প্রেগন্যান্ট’!

প্রচণ্ড পেটে ব্যথা। দম আটকে আসছে যেন! সেই অবস্থাতেই ডাক্তারের কাছে ছুটে গিয়েছিলেন ওই মহিলা। কিন্তু তারপর আল্ট্রাসোনোগ্রাফি করে ডাক্তার যা বললেন, তা শুনেই যেন আকাশ থেকে পড়লেন। তিনি নাকি প্রেগন্যান্ট! এই যন্ত্রণা হলো প্রসবযন্ত্রণা।

আর কিছুক্ষণের মধ্যেই মা হতে চলেছেন তিনি। হলোও তাই। চেক-আপের তিনঘণ্টা পরই ফুটফুটে এক কন্যাসন্তানের জন্ম দেন এমা প্রিস্কট। বছর খানেক আগে ডাক্তার চেক-আপ করে জানতে পেরেছিলেন এমার পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম রয়েছে। ফলে তার দেহে ইস্ট্রোজেন হরমোনের কোনো ভারসাম্য নেই। যার ফলে তিনি কখনো মা হতে পারবেন না। এমাকে সেকথা সাফ জানিয়েও দেন ডাক্তার। এদিকে একবছর পর যখন তিনি শুনলেন ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই মা হতে চলেছেন, তখন যেন নিজের কানকেই বিশ্বাস করতে পারছিলেন না এমা।-জিনিউজ