মেইন ম্যেনু

সফট ড্রিংকে চুমুক না দিলে স্বস্তি পান না? সাবধান!

আপনি কি সফট পানীয় পছন্দ করেন? প্রশ্নটা যদিও খুব বোকা বোকা। খুব স্বাস্থ্য সচেতন মানুষজনের কথা বাদ দিলে আমরা কমবেশি প্রায় সকলেই কোল্ড ড্রিংক বা অন্য কোনও সফট ড্রিংক পছন্দ করি। গরমে তো কথাই নিই। গা চপচপে ঘামে দিনে কতবার যে সফট ড্রিংকে চুমুক দিয়ে স্বস্তি খুঁজি, হিসেব নেই।

বিপত্তি এখানেই। নিজেদের অজান্তেই আমরা কিন্তু ডায়াবেটিস ডেকে আনছি। এমনটাই দাবি গবেষকদের। সম্প্রতি প্রকাশিত এক সুইডিশ গবেষণায় উল্লেখ করা হয়, সারাদিনে ২০০ মিলিলিটারের দুটো সফট পানীয় খেলে আর দেখতে হবে না। তাঁদের দাবি অনুযায়ী, ৪০০ মিলিলিটারের বেশি সফট পানীয় পেটে গেলে, টাইপ-২ ডায়াবেটিসের সম্ভাবনা দ্বিগুণ হয়ে যায়।

আর যাঁরা দিনে ২০০ এমএলের পাঁচটি পানীয় দিব্য খেয়ে ফেলেন, অর্থাত্‍‌ দিনে এক লিটার সফট ড্রিংক, তাঁদের ক্ষেত্রে ডায়েবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি ১০ গুণ বাড়ে। গবেষণায় আরও তাঁরা দেখেছেন, পরিমাণ যা-ই হোক নিয়মিত সফট পানীয়ে অভ্যস্ত হলে বিশেষ ধরনের একটি ডায়াবেটিসও দেখা যেতে পারে, মেডিক্যালের পরিভাষায় যাকে বলা হয় ল্যাটেন্ট অটোইমিউন ডায়াবেটিস (Lada)।

যা থেকে ভবিষ্যতে টাইপ ১ ও টাইপ ২ দু-ধরনের ডায়াবেটিসই হতে পারে। শুধু কোল্ড ড্রিংক বলে নয়, বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, চিনিযুক্ত বা কৃত্রিম মিষ্টির যে কোনও পানীয় খেলেই ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ে। টাইপ ১ ডায়াবেটিসের ক্ষেত্রে নিয়মিত ইনসুলিন ইঞ্জেকশন নিয়ে যেতে হয়। টাইপ ২-ক্ষেত্রে অবশ্য নিয়মিত ইঞ্জেকশনের প্রয়োজন পড়ে না।

লাইফস্টাইল ও ওবেসিটি টাইপ ২ ডায়াবেটিসের অন্যতম কারণ। সমীক্ষা জানাচ্ছে, শুধু ব্রিটেন টাইপ ২ ডায়াবেটিসে আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লক্ষ। আর গোটা বিশ্বের নিরিখে প্রতি ১১ জনে ১ জন ডায়াবেটিসের শিকার। সুইডিশ এই গবেষেণা রিপোর্টটি প্রকাশিত হয়েছে ইউরোপিয়ান জার্নাল অফ এন্ডোক্রিনোলজিতে।- এই সময়