মেইন ম্যেনু

সফল শিল্পউদ্যোক্তা সোহানী হোসেনের ৫০তম জন্মদিন আজ

নাটোর প্রতিনিধি: সফল শিল্পউদ্যোক্তা, কবি, সাহিত্যাক, চলচ্চিত্র নির্মাত ১৯৬৭ সালের নাটোর জেলা সদরে কানাইখালীতে এক সম্ভান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। শিক্ষাজীবন শেষ করার আগেই তিনি ১৯৮৯ সালে পাবনার বিশিষ্ট শিল্পপতি এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন শ্যুটার আলহাজ মোবারক হোসেন রতর সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। সংসার জীবনে হয়ে ওঠেন একজন সফল মা। সাথে দায়িত্ব পান ইউনির্ভাসাল গ্রুপের।

সে সময় থেকে কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্বেও পাশাপাশি বাচ্চাদের স্কুলের পড়ালেখা তাদের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সহ নানাবিধ দায়িত্ব পালন করেন। অপরদিকে পাবনার বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সাথে জড়িয়ে পড়েন। কিন্তু হঠাৎ করেই তাঁর জীবনে নেমে আসে এক কালো অধ্যায়।

স্বামী মোবারক হোসেন রত্ন দুরারোগ্য ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। উন্নত চিকিৎসার জন্য যান সিঙ্গাপুরে। ব্যাবসা ও সন্তানদের যে দায়িত্ব দু’জন একসাথে পালন করতেন সে দায়িত্ব এসে পড়ে একা সোহানী হোসেনের কাঁধে। তিনি দায়িত্ব পালনে পিছপা হননি।

সে দায়িত্ব আর তার কাঁধ থেকে নামেনি। ২০০৭ সালের ১৯শে মার্চ আলহাজ মোবারক হোসেন রত্নর অকাল মৃত্যুর পর তাঁর দেয়া দায়িত্ব সফলভাবে পালন করেন তিনি। অল্পদিনেই নারী শিল্পউদ্যোক্তা হিসেবে দেশে ও বিদেশে প্রতিষ্ঠিত করেন নিজেকে। এখন তিনি একজন সফল ব্যবসায়ী, সফল মাতা এবং সফল সমাজকর্মী।

সমাজসেবায় বিশেষ অবদানের জন্য তিনি মাদার তেরেসা পদক ও দাদা সাহেব ফালকে পুরস্কারে ভূষিত হন। তিনি কবিতা, গান, গল্প লিখে, ছবি এঁকে জয় করতে চেয়েছেন মানুষের মন। অভাবনীয় সাড়াও পেয়েছেন তাতে। তাঁর লেখা কবিতার বই ‘সমুদ্র’, ‘সমুদ্র তরঙ্গ’ ও ‘তৃতীয় একজন’ ,বিদায় ছুটিপুর ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে পাঠক সমাজে।

লেখা কবিতা নিয়ে দেশের নন্দিত শিল্পী বাপ্পা মজুমদারের সুরে এবং জনপ্রিয় আবৃত্তিকার শিমুল মুস্তাফা ও ঈশিকা আজিজের কণ্ঠে তৈরি হয়েছে আবৃত্তির সিডি ‘তৃতীয় একজন’। তাঁর আঁকা ছবি নিয়ে প্রকাশিত হয়েছে ছবি গ্রন্থ ‘কষ্টগুলো আটকে থাকে দুই মলাটের ভাঁজে’।

গীতিকার ও গল্পকার হিসাবেও তিনি নিজেকে তুলে ধরেছেন মানুষদের মাঝে। তার লেখা বেশ কয়েকটি গান এখন জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করছে। তার ‘মা’ গল্প থেকে তৈরি হচ্ছে চলচ্চিত্র ‘সত্ত্বা’। চার্টার্ড প্রেসিডেন্ট হয়ে প্রতিষ্ঠা করেছে রোটারি ক্লাব অব রূপকথা পাবনা, পাবনা রাইফেল ক্লাবের আজীবন সদস্য, পাবনা বনমালী ইনস্টিটিউট আজীবন সদস্য, পাবনা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভানেত্রী, পাবনা কারাগারের বেসরকারি কারা পরিদর্শক, পাবনা সরকারি শিশু পরিবার পরিচালনা কমিটির সদস্য, পাবনা মহিলা ক্লাবের কার্যকরি সদস্য, পাবনা সদর উপজেলা খাসজমি বন্দোবস্ত কমিটির সদস্য, পাবনা লাগসই প্রযুক্তি জাদুঘরের সদস্য সচিব, পাবনা আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলামের কার্যকরি সদস্য, আজীবন সদস্য বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি পাবনা শাখা। আজীবন সদস্য ও কার্যকরি সদস্য, সদর উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটি সদস্য, আদর্শ মহিলা কলেজ, পাবনা বিদ্যোৎসাহী সদস্য পরিচালনা কমিটি, শহীদ রফিক আহম্মেদ বালিকা বিদ্যালয়, পাবনা পরিচালনা পরিষদের বিদ্যোৎসাহী সদস্য ও জেলা সমাজকল্যাণ পরিষদ পাবনাসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনে সক্রিয় সদস্য হিসাবে জড়িত থেকে এসব প্রতিষ্ঠানকে বিভিন্ন পরামর্শ ও আর্থিক সহযোগিতার মাধ্যমে সামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখছেন।

ব্যবসায়িক সফলতা: সফলতা দিয়ে গড়ে তুলেছেন ইউনিভার্সাল ফার্মাসিউটিক্যাল লিমিটিড, ইউনিভার্সাল ফার্মাসিউটিক্যালস্ (ইউনানী), ইউনিভার্সাল ফুড লিমিটেড, ইউনিভার্সাল ওয়েল মিল, গ্রিনার রাইস মিল, গ্রিনার মশলা মিল, অনন্ত সিনেমা লিমিটেড, রূপকথা সিনেমা, প্রেরণা সিনেমা, তরঙ্গ প্যাকেজিং, তরঙ্গ ট্রান্সপোর্ট ও রত্নদীপ রিসোর্টসহ বেশকিছু প্রতিষ্ঠান।