মেইন ম্যেনু

সব পদ ছাড়লেন পাপিয়া, শিরিন একটি

বিএনপির নতুন কমিটির কেন্দ্রীয় সহ-মানবাধিকার সম্পাদক ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন সৈয়দা আশিফা আশরাফি পাপিয়া। এছাড়া নতুন কমিটির স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক পদ ছেড়ে মহিলা দলের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি পদ ধরে রেখেছেন শিরিন সুলতানা।

দুইদিন আগে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে তারা পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

দলের ষষ্ঠ কাউন্সিলে গৃহীত ‘এক নেতার এক পদ’ অনুসরণ করে শিরিন সুলতানা একটি পদ থেকে পদত্যাগ করলেও পাপিয়া দুটি পদই ছেড়ে দিয়েছেন।

জানতে চাইলে শিরিন সুলতানা বলেন, বিএনপির ষষ্ঠ কাউন্সিলে গৃহীত নীতি ‘এক নেতার এক পদ’ অনুসরণ করে আমি স্বনির্ভর বিষয়ক পদ থেকে পদত্যাগ করেছি। পদত্যাগপত্রে আমি বিষয়টি উল্লেখও করেছি। কিন্তু এ বিষয়ে পাপিয়ার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।

দলের নতুন কমিটি ঘোষণার পর এই কমিটিকে ‘সার্কাস পার্টি’ উল্লেখ করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন পাপিয়া। বিভিন্ন গণমাধ্যমে তা প্রকাশিত হলে ১১ আগস্ট সংবাদ সম্মেলন করে স্ট্যাটাসের বিষয়টি বানোয়াট ও ভিত্তিহীন দাবি করেন পাপিয়া। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, তার কোনো ফেসবুক একাউন্ট নেই। তাই তার স্ট্যাটাস দেয়ার বিষয়টি ভিত্তিহীন।

গত ১৯ মার্চ বিএনপির জাতীয় সম্মেলনে দলে ‘এক নেতার এক পদ’ এই নীতি কার্যকরের সিদ্ধান্ত হয়। কাউন্সিলের পর মহাসচিব হয়ে প্রথমে ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপির সভাপতি ও কৃষক দলের সভাপতির পদ ছেড়ে দেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। পরে যুবদলের সভাপতির পদ ছেড়ে দেন নতুন কমিটির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। নতুন কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান কেন্দ্রের পদ রেখে নোয়াখালী জেলা সভাপতির পদ ছেড়ে দেন।

সর্বশেষ গত বুধবার রাতে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পদ রেখে টাঙ্গাইল জেলা বিএনপির দায়িত্ব ছেড়ে দেন আহমেদ আজম খান। একইদিন ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক পদ ছেড়ে দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টার পদ রেখে দেন আমান উল্লাহ আমান।